• রোববার   ৩১ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
৭৮

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে গোপালগঞ্জে বাজার স্থানান্তর

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০২০  

গোপালগঞ্জে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও সংক্রমণ ঠেকাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে জেলা সদরের তরকারি, মাছ ও মাংসের বাজার স্থানান্তর করা হয়েছে। আজ রবিবার সকাল থেকে স্থানীয় শেখ কামাল আউটার ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বসেছে এ বাজার। সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত চলবে কেনাবেচা।

বেচাকেনার নতুন স্থানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দোকান বসানো হয়েছে। ক্রেতারাও নিয়ম মেনে কেনাকাটা করছেন। সারা দেশের ন্যায় গোপালগঞ্জের অন্য সবধরণের দোকানপাট বন্ধ থাকলেও তরকারি, মাছ ও মাংসের বাজারে সকালের দিকে কেনাকাটায় ভিড় লেগে যায়। যার ফলে জেলা প্রশাসন জেলার কাশিয়ানী, কোটালীপাড়া, মুকসুদপুর ও টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বিভিন্ন বাজারে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ ছাড়া জেলার ওষুধের দোকান খোলা রয়েছে। নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য (মুদী) দোকানগুলো বিকাল ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকছে। ক্রেতারা যার যার প্রয়োজন অনুযায়ী সময়মতো কেনাকাট করে ঘরে ফিরছেন।

গোপালগঞ্জ উদীচীর সভাপতি নাজমুল ইসলাম জানিয়েছেন, প্রশাসন সময়োপযোগী সঠিক সিন্ধান্ত গ্রহণ করেছে। সকালে যেভাবে বাজারে ভিড় হয় তাতে করোনা ঝুঁকি ছিল খুব। এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। 

তরকারি বিক্রেতা পংকজ রায় ও নির্মল বিশ্বাস জানান, প্রশাসন যা করেছেন ভালো হয়েছে। তা না হলে প্রতিদিন প্রশাসনের লোকজন মনিটরিং এ আসে। তাড়াহুড়ো লেগে যায়। এবার আর ওই ভয় থাকল না। 

বাজার করতে আসা সৈয়দ আকবর হোসেন জানান, নতুন করে স্থাপন করা বাজারে এসে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বাজার করা যাচ্ছে। এতে করোনা ঝুঁকি কিছুটা হলেও কমবে। এই ব্যবস্থাটা প্রথম থেকে করলে ভালো হতো।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিকল্প  আর কিছু নেই। বাজারগুলোতে সব সময়ই ভিড় লেগেই থাকে। এতে করোনা ঝুঁকি বাড়ার সম্ভাবনা বেশী। এটা গোপালগঞ্জ পৌরসভার বাজার হওয়ায় এখানে কোনোভাবে লোকসমাগম ঠেকানো যাচ্ছিল না। তা ছাড়া, বাজারের স্থানটা ঘিঞ্জি হওয়ায় লোকসমাগম ঠেকাতে সমস্যা হচ্ছিল। তাই এই সিন্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর