• শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
১০০

কৃষকের পাকা ধান কেটে দেবে যশোর কৃষি বিভাগ

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৫ এপ্রিল ২০২০  

করোনার কারণে শ্রমিক সংকট দেখা দিতে পারে তাই এ বছর কৃষকের বোরো আবাদ হারভেস্টার মেশিন দিয়ে কেটে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে যশোর কৃষি বিভাগ। কেবল মেশিনটি পরিচালনার তেল খরচ দিয়েই ধান কাটার সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন কৃষক। এ ব্যাপারে ইতোমধ্যে প্রচারণা শুরু হয়েছে। 

যশোর জেলায় চলতি বোরো মৌসুমে এক লাখ সাড়ে ৫৪ হাজার হেক্টর জমিতে ধান আবাদ হয়েছে। প্রকৃতি অনুকূলে থাকায় এ বছর বাম্পার ফলনেরও সম্ভাবনা রয়েছে। ১৫দিন পর থেকেই কাটা শুরু হবে ধান। কিন্তু করোনার ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে সরকারি নির্দেশে মানুষ ঘরবন্দি থাকায় এ ধান কাটতে শ্রমিক সংকটের আশংকা দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় কৃষকের ধান ঘরে তুলতে হারভেস্টার মেশিন দিয়ে ধান কেটে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে যশোর কৃষি বিভাগ।

৬২টি হারভেস্টার মেশিন দিয়ে জেলার কৃষকদের সমস্ত ধান কেটে দেয়া হবে। আর এর জন্য কৃষককে কেবল মেশিনটি পরিচালনার তেল খরচ দিলেই হবে। প্রয়োজনে কৃষি বিভাগের তত্ত্বাবধানে করোনা সংক্রান্ত পরীক্ষা সম্পন্ন করে বাইরের জেলা থেকে শ্রমিক এনে দিতেও প্রস্তুত কৃষি বিভাগ। তারা বলেন, যদি কোন ভাবে ধান কাটতে সমস্যা হয় তাহলে অবশ্যই কৃষকরা যেনো ওই এলাকার উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করে তাহলে ধান কেটে তাদের বাড়িতে দেয়ার পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করবো।  

এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে কৃষক পর্যায়ে প্রচার শুরু করেছেন কৃষি কর্মকর্তারা। সেইসাথে দুর্দিনে নামমাত্র খরচে কৃষককে সহায়তা করতে প্রস্তুত ভর্তুকি মূল্যে পাওয়া হারভেস্টার মেশিনের মালিকরা। তারা বলেন, এই গাড়ি চালাতে কিছু খরচ আছে। বিষয়টি যেনো কৃষি বিভাগ দেখে। আমাদের পারিশ্রমিক দেয়।  
কৃষি বিভাগের এমন উদ্যোগে সন্তুষ্ট কৃষক তবে সবাই যাতে এ সুবিধা পেতে পারে সেজন্য ব্যাপকভাবে প্রচারণার দাবি তাদের। কৃষকরা বলেন, আমরা এমন উদ্যোগ্যে খুব খুশি। প্রচারণা আরও বেশি করতে হবে। 
কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, হারভেস্টার মেশিন দিয়ে প্রতি ঘন্টায় দুই বিঘা জমির ধান কাটা সম্ভব এবং এতে খরচ পড়বে মাত্র ২৫০ টাকা।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
সুসংবাদ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর