• রোববার   ০৭ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৫ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
৬৫

গোপালগঞ্জে ব্রি হাইব্রিড ধানের বাম্পার ফলন

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২০  

গোপালগঞ্জে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি) উদ্ভাবিত ব্রি হাইব্রিড ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে।  এ ধান দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা । ভাল ফলন দেখে আগামীতে এ ধান চাষে আগ্রহী জেলার অনেক কৃষক ।

গোপালগঞ্জ আঞ্চলিক ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, এ বছর ব্রি-হাইব্রিড ধান-৫ প্রতি হেক্টরে ১০.৮৬ মেট্রিক টন ও ব্রি হাইব্রিড ধান-৩ হেক্টর প্রতি ৯.৬৭ মেট্রিক টন উৎপাদন হয়েছে। দেশে প্রচলিত হাইব্রিড ধান হেক্টর প্রতি ৭ থেকে ৮ টন ফলন দেয় বলে জানায় গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি ।

জেলার হরিণাহাটি গ্রামের কৃষক ঠান্ডা শেখ জানান, ব্রি থেকে বীজ, সার, ও নগদ অর্থ পেয়ে ১ একর ১৫ শতাংশ জমিতে ব্রি হাইব্রিড ধান-৩ ও ব্রি হাইব্রিড ধান-৫ জাতের ধানের আবাদ করি । কম সার ও  পোকার আক্রমণ হয়নি বলে কম খরচে  বেশি ধান উৎপাদন করতে পেরেছি 

কোটালীপাড়া  কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ মিলন জানান, এ  দুই জাতের হাইব্রিড ধান চাষে সর্বোচ্চ ফলন দিয়েছে। ধানের এ জাত দুটি ছড়িয়ে দিতে পারলে দেশে ধান উৎপাদনে বিপ্লব ঘটবে।

ব্রি গোপালগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয়ের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মোঃ সাইদী রহমান জানান, এ জাতের ধান চিকন। বাজারে একটু বেশি দামে বিক্রি হবে । ধানের ভাল ফলন দেখে  জেলার অনেক কৃষক আগামী বছর এ ধান আবাদে আগ্রহী হয়েছেন। বীজ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান বিএডিসি এ ধানের বীজ উৎপাদন শুরু করলে কৃষকের বীজের চাহিদা মেটানো সম্ভব হবে।

ব্রি, আঞ্চলিক কার্যালয়, গোপালগঞ্জ এর প্রধান ড. মোঃ খায়রুল আলম ভূঁইয়া জানান, প্রচলিত হাইব্রিড ধান হেক্টরে ৭ থেকে ৮ টন ফলন দেয় । সেখানে আমাদের উদ্ভাবিত হাইব্রিড রেকর্ড ফলন দিয়েছে। এছাড়া বিদেশি হাইব্রীড ধান বীজ বাজারে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা  কেজি দরে বিক্রি হয়। এ ব্যাপারে ব্রি হাইব্রিড ধানের বাণিজ্যিকভাবে বীজ উৎপাদনের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। সেখানে ব্রি হাইব্রিড ধান বীজ প্রতি কেজি কৃষক ৩০ থেকে ৫০ টাকায় কিনতে পারবেন। এতে বিপুল পরিমান বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হয়। ধানের উৎপাদন বৃদ্ধি করে খাদ্য নিরাপত্তা  নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
গোপালগঞ্জ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর