• বুধবার   ০৩ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২০ ১৪২৭

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
৭৬

ধান কেটে দিলেন ভাইস চেয়ারম্যান, পাশে ছাত্রলীগও

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০২০  

গোপালগঞ্জ জেলায় শ্রমিক সংকটে দরিদ্র ও বর্গাচাষিদের ধান কেটে দিয়েছেন সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নীতিশ রায়। এ ছাড়া ছাত্রলীগের উদ্যোগেও কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দেওয়া হয়।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে দেশে অবরুদ্ধ অবস্থার মধ্যে চলতি বোরো মৌসুমে ধানকাটার শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে আজ শনিবার (২৫ এপ্রিল) সকালে সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান নীতিশ রায়ের নেতৃত্বে ২০ সদস্যের একটি দল বেদগ্রামের অসুস্থ কৃষক বাবু রামের দুই বিঘা জমির ধান কেটে দেন। পরে ধান মাড়াই করে ঘরে তুলে দেওয়া হয়।

অপরদিকে, সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম দ্বীন ইসলামের নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের একটি দল সদর উপজেলার উরফি ইউনিয়নের বিধবা রিভা বেগমের দেড় বিঘা জমির ধান কেটে দেন। সেই ধান মাড়াই করে ঘরে তুলে দেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দিদার ইসলাম ও দপ্তর সম্পাদক সাব্বির হোসেন তাজ উপস্থিত ছিলেন। 
অন্যদিকে, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক বিশ্বাসের নেতৃত্বে গোপালপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ২০ সদস্যের দল ধীরেন্দ্রনাথ মন্ডলে দুই বিঘা জমির ধান কেটে ঘরে তুলে দেন।

বেদগ্রামের কৃষক বাবু রাম বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে তিনি প্যারালাইজড রোগে আক্রান্ত রয়েছেন। ধানকাটার জন্য শ্রমিক পাচ্ছিলেন না।

‘‘সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান আমার জমির ধান কেটে দিয়েছেন। এজন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই।’’ 

উরফি ইউনিয়নের রিভা বেগম তার ধান কেটে দেওয়ায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানান।

সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম দ্বীন ইসলাম জানান, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত তারা কৃষকের পাশে থাকবেন।

ভাইস চেয়ারম্যান নীতিশ রায় বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকলকে কৃষকের পাশে থেকে  ধান কেটে দেওয়ার কথা বলেছেন। সেজন্য তিনি কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর