• বুধবার   ০৮ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৪ ১৪২৭

  • || ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
৭৬

বসন্তে রঙিন সাজ

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

বাতাসে বহিছে প্রেম, নয়নে লাগিল নেশা, কারা যে ডাকিল পিছে। বসন্ত এসে গেছে। কোকিলের কুহু ডাক, দক্ষিণা হাওয়া আর বাতাসে আমের মুকুলের ঘ্রাণ, বলে দিচ্ছে বসন্ত এসে গেছে। বসন্ত মানেই রঙের ছড়াছড়ি। শীতের জীর্ণতা সরিয়ে ফুলে ফুলে সেজে ওঠার আনন্দময় প্রস্তুতি এখন প্রকৃতি জুড়ে। তাইতো ঋতুরাজ বসন্তকে আপন করে নিতে পয়লা ফাল্গুনে বাঙালি সাজে নতুন সাজে। নারী মনে লাগে বসন্তের হলদে ছোঁয়া। নয়ন জুড়ানো প্রকৃতির এই উৎসবে শামিল হতে কে না চায়! বসন্ত বরণের প্রস্তুতি কম-বেশি সবার মাঝেই থাকে। তাই বসন্তের সাজ নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন।
 

কেমন চাই বসন্তের মেকআপ?


বেইজ মেকআপ:
প্রথমত রোদের জন্য মুখে সানস্ক্রিন লোশন লাগিয়ে ৫-৮ মিনিট অপেক্ষা করুন। সানস্ক্রিন শুকিয়ে এলে আবার বেইজ মেকআপ শুরু করা যাবে। দিনের বেলায় ফাউন্ডেশনকে না বলাটাই ভালো। তাই বেইজ মেকআপের জন্য বিবি ক্রিম বা টিন্টেড ময়েস্চারাইজার লাগান। কন্সিলার দিয়ে মুখের ছোটখাটো দাগগুলো ঢেকে দিতে পারেন। ফাইনাল ফিনিশিং দিতে লুজ পাউডার বা ফেইস পাউডার বুলিয়ে নিন। যখন আপনি বুঝবেন আপনার ত্বক শুষ্ক হয়ে গেছে, তাহলে আপনার বেইজ মেকআপ তৈরি হয়ে গেল। এরপর ইচ্ছে হলে হালকা পিচ বা গোলাপি রঙের ব্লাশন লাগাতে পারেন।

চোখের সাজ:
চোখের সাজের জন্য ব্যবহার করুন উজ্জ্বল রংগুলো যেমন ব্রাউন, গোল্ডেন, কপার, সোনালি বাদামি, লালচে সোনালি ইত্যাদি রঙের আইশ্যাডো। এরপর চোখে মোটা করে কাজল লাগান এবং চোখের পাপড়িতে মাশকারা লাগান এক কোট। ব্যাস, হয়ে গেল চোখের সাজ।

চুলের সাজ:

ফুলের রিং
আগে নারীরা ফাল্গুনে যেমন খোপার এক পাশে একটি বা দুটি ফুল গুঁজে দিতো এখন সেই স্টাইল অনেকটাই চলে গিয়েছে। ফুলের গহনা ও ফুল লাগানোর ধরণে এসেছে অনেক পরিবর্তন। খুব ছিম ছাম গহনা পরে মাথায় একটি বড় ফুলের রিং পরার প্রচলনটাই বেশি এখন। গত কয়েক বছর ধরেই এই প্রচলনটা বেশি দেখা যাচ্ছে। তরুণীরা শাড়ি, সেলোয়ার কামিজ কিংবা ফতুয়ার সঙ্গে মাথায় এই ফুলের রিং গুলো পরতে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছে। সব ধরনরে সাজের সঙ্গেই মানিয়ে যায় এই ফুলের রিং গুলো। একটি বোহেমিয়ান ধাঁচের এই ফুলের রিং গুলো সাজে আনে ভিন্নতা ও আভিজাত্য।
 


খোলা চুলে ফুল
চুলে ফুল পরতে হলেই চুল বাধতে হবে এমন ধারণায় এসেছে পরিবর্তন। এখন তরুণীরা খোলা চুলেই পরছে নানান রকমের ফুল তবে গোলাপ ফুল পরার প্রচলন একেবারেই কমে গিয়েছে। ফ্যাশন সচেতন নারীরা এখন জারবেরা কিংবা অর্কিড লাগাতেই বেশি পছন্দ করে।

বেনীতে ফুল
ইদানিং বেনির মাঝে মাঝে একটি একটি করে ছোট ফুল গুঁজে দেয়ার চল এসেছে। এই ফাল্গুনে আপনিও বেনির মাঝে ছোট ছোট ফুল গুঁজে নিতে পারেন। তাজা ফুলের পাশাপাশি কৃত্রিম ফুলও চলছে সমান তালে। গতবারের মত এইবারের ফাল্গুনেও নারীদেরকে চুলে কৃত্রিম ফুল কিংবা ফুলের ক্লিপ পরতে দেখা যাবে।
লেখাটি পছন্দ হইলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

ফুলের সাজ:
ফুলের সাজ বলতে, অনেকে গয়না হিসাবে ফুলকে বেছে নেয়। সেক্ষেত্রে কানের দুল, গলায় মালা, মাথায় প্রিন্সেস ব্যান্ড বা চুলের সাজে ফুল কিংবা হাতে মালা পেঁচিয়ে নেয়া যায়। তবে প্রাধান্য পাবে গাঁদাফুল, বেলি, গন্ধরাজ, গোলাপ, জারবেরা ইত্যাদি। বাসন্তী রঙের কারণে পহেলা ফাল্গুন গাঁদা ফুলের সাজকে সবাই বেশি পছন্দ করে।

গয়না:
যেহেতু সাজ পোশাক সম্পূর্ণই হালকা তাই গয়নাটা ও হালকা মানের দেশীয় গহনা গুলো বেছে নিন। সালোয়ার-কামিজ, ফতুয়া, পাঞ্জাবীর সাথে মাটি, কাঠ কিংবা মেটালের দুল পরুন। গলায় কিছু না পরাটাই ভালো। হাত ভর্তি চুড়ি পরুন। হাতের জন্য বেছে নিন কাঠ, মাটি, মেটাল বা কাঁচের রেশমি চুড়ি। শাড়ি পরলে গলায় পরতে পারেন লম্বা পুঁতির মালা। হাত ভর্তি পরুন কাঁচের রেশমি চুড়ি।

সবশেষে, কপালে পরুন বড় একটি লাল টিপ বা বিভিন্ন ডিজাইনের ফাল্গুনের টিপ পড়তে পারেন । আপনার সাজে স্নিগ্ধতা আনতে ঠোঁটের জন্য বাছাই করুন হালকা রঙের লিপস্টিক। সাজে সজীবতা ধরে রাখতে ব্যবহার করুন হালকা সুগন্ধি।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর