• সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০ ||

  • চৈত্র ১৫ ১৪২৬

  • || ০৫ শা'বান ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
সর্বশেষ:
গত ৪৮ ঘন্টায় করোনায় দেশে নতুন আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর করোনা আতঙ্কেও থেমে নেই ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের হজ নিবন্ধন করোনা মোকাবিলায় ৮ বিভাগে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ নিয়োগ ভারত থেকে ফিরতে আগ্রহীদের তালিকা প্রস্তুত হচ্ছে : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিজে একটু সুরক্ষিত থাকুন, অন্যকেও সুরক্ষিত রাখুন : প্রধানমন্ত্রী
৮৩

বিয়েতে গায়ে হলুদ পালনের রহস্য জানেন কি?

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি ২০২০  

শীত মানেই বিয়ের মৌসুম। আর বিয়ে মানেই জমিয়ে খাওয়া-দাওয়া, আড্ডা, সাজগোজ এবং আনুষ্ঠানিক আচার-ব্যবহারে ভরপুর একটি উৎসব।  বিয়ের বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানের মধ্যে গায়ে হলুদ অন্যতম। বর-কনের গায়ে হলুদ লাগানোর চল আছে বিভিন্ন সংস্কৃতিতে। তবে কখনো ভেবে দেখেছেন কি, যে বিয়ের আগে কেন হলুদের অনুষ্ঠান করা হয়? 

শরীর এবং মনের ক্লিনজার 
বিশেষজ্ঞদের মতে, তারা হলুদকে শরীর এবং মনের জন্য চমৎকার ক্লিনজার হিসেবে বিশ্বাস করেন। কাঁচা হলুদ প্রাকৃতিকভাবে জীবাণুনাশক। হলুদ শরীরকে পরিষ্কার করে ও সংক্রমণ প্রতিরোধ করে। এটি বিয়ের প্রস্তুতি এবং বিবাহিত জীবনে স্বাগত জানায়। তাই, বিয়েতে হলুদ অনুষ্ঠান খুব শুভ।   

আশীর্বাদের প্রতীক 
এটি আশীর্বাদের চিহ্ন। বিয়েতে হলুদ লাগানো, দম্পতি এবং স্বাস্থ্যকর দাম্পত্য জীবনে আশীর্বাদের প্রতীক হিসেবে বিবেচিত হয়। ভারতীয় সংস্কৃতি অনুসারে, বাড়ির সমস্ত বিবাহিত নারীরা কনে এবং বরের জন্য হলুদ অনুষ্ঠান করেন। এটি দীর্ঘ ও স্বাস্থ্যকর সম্পর্কের জন্য হবু দম্পতিদের আশীর্বাদ করার উপায়। 

উজ্জ্বল এবং ঝলমলে ত্বকের জন্য হলুদ
ত্বককে উজ্জ্বল করতে বিশেষভাবে উপকারি হলুদ। হলুদ ব্যবহারে বিয়ের দিন আপনার ত্বক উজ্জ্বল এবং ঝলমলে করতে সহায়তা করে। অন্যদিকে, এটি ত্বকের মৃত কোষগুলো সরিয়ে ত্বককে চকচকে করে।       

মনকে শুদ্ধ করে
বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, হলুদের স্নিগ্ধতা মনকে শুদ্ধ করে। এতে বড় কনের বিয়ে ভীতি দূর হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে হলুদ ব্যবহারে বিবাহের আগের ক্লান্তি রোধ করতে সহায়তা করে। হলুদে কারকুমিন নামক রাসায়নিক রয়েছে। এটি মাথা ব্যথা, দেহের প্রদাহ এবং উদ্বেগের প্রাকৃতিক প্রতিকার হিসেবে কাজ করে। মনকে শান্ত করার জন্যও এটি দুর্দান্ত উপাদান। 

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর