• বুধবার   ১৪ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৭

  • || ০২ রমজান ১৪৪২

দৈনিক গোপালগঞ্জ

ভুলের শাস্তি পেয়েছে স্মিথ, তাকে অধিনায়ক করা উচিত

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৬ মার্চ ২০২১  

বল টেম্পারিং কাণ্ডে ক্রিকেট থেকে এক বছরের নিষেধাজ্ঞাসহ অধিনায়কত্ব থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ। এ দুইটি শাস্তিই শেষ করে ফেলেছেন স্মিথ। ভালোভাবেই প্রত্যাবর্তন করেছেন ক্রিকেট মাঠে। তবে আর ফিরে পাননি অধিনায়কত্ব।

অস্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান উসমান খাজার মতে, এখন স্মিথ চাইলে বর্তমান অধিনায়ক টিম পেইনের পর অধিনায়কত্বের ভারটা তাকেই (স্মিথ) দেয়া উচিত। শাস্তি ভোগ করে আসার পরও আগের নেতিবাচক কর্মের কারণে সেরা খেলোয়াড়কে বঞ্চিত রাখার পক্ষে নন উসমান খাজা।

শুক্রবার ব্রিসবেনে সংবাদমাধ্যমে খাজা বলেছেন, ‘যদি স্টিভ স্মিথ অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হতে চায়, তাহলে তার অধিনায়ক হওয়া উচিত। সে আমাদের এক নম্বর ব্যাটসম্যান এবং আগেও (অধিনায়কত্ব) করেছে। নিজের ভুলের শাস্তি ভোগ করে এসেছে। এখন তাকে অধিনায়কত্বের জন্য বিবেচনা না করার কারণ নেই।’

২০১৮ সালে স্মিথ নিষিদ্ধ হওয়ার পর টেস্ট দলের অধিনায়ক হয়েছিলেন পেইন। তার অধীনেই ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডের মাটিতে এশেজ ট্রফি ধরে রাখার পাশাপাশি টেস্ট র‍্যাংকিংয়েও শীর্ষে উঠেছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে পেইনের অধিনায়কত্ব নিয়ে সবসময়ই চলেছে তীর্যক আলোচনা। যদিও নির্বাচক ট্রেভর হনস জানিয়েছেন, পেইনের অধিনায়কত্ব দিয়ে টিম ম্যানেজম্যান্ট নেতিবাচক কিছু ভাবছে না।

বর্তমানে টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক ডানহাতি পেসার প্যাট কামিনস এবং কোনো ধরনের পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকলেও মার্নাস লাবুশেনকেও ভাবা হচ্ছে পরবর্তী অধিনায়ক হিসেবে। অন্যদিকে স্মিথ সম্প্রতি বলেছেন, আবার অধিনায়ক হওয়ার বিষয়টি তার হাতে নেই। দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই কাজ করবেন তিনি।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ