• রোববার   ০৭ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৫ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
৪০

মুশফিকের ব্যাটের জন্য বিড করেছিল টাইগার উডস ফাউন্ডেশন

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৬ মে ২০২০  

মুশফিকুর রহিমের ঐতিহাসিক ব্যাট নিলাম থেকে কিনতে চেয়েছিল বিশ্বের সর্বকালের সেরা গলফার টাইগার উডসের গড়া টাইগার উডস ফাউন্ডেশন। যদিও ভুয়া বিডের কারণে আগ্রহ হারিয়ে ফেলে তারা।

মুশফিকুর রহিমের নিলাম শুরু হয় ১০ মে। ই-কমার্স সাইট পিকাবুর ওয়েবসাইটে নিবন্ধনের মাধ্যমে আগ্রহী যে কেউ বিড করতে পারতেন। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে অদ্ভত নামে বা বেনামী অনেকে অস্বাভাবিক মূল্য হাঁকতে থাকেন, কখনো নিলামের প্রতিযোগিতাকেও বাধাগ্রস্ত করছেন। অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধিতে ব্যাট নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে ভেবে বিড বন্ধ করে দেয় টাইগার উডস ফাউন্ডেশনও।

৬ লাখ টাকা ভিত্তিমূল্যের ব্যাটটি প্রায় ১৮ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছে। তবে ভুয়া বিডাররা ব্যাটের দাম প্রদর্শিত করেছিল ৪১ লাখ টাকা পর্যন্ত। মুশফিকের ব্যাট কেনার আগ্রহ হারিয়ে ফেললেও অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলীর জার্সি ও গ্লাভস কিনেছেন টাইগার উডসের দাতব্য ফাউনেডশনে ফটোগ্রাফার হিসেবে কাজ করা জুয়েল নামের একজন প্রবাসী বাংলাদেশি।

নিলামের ক্ষেত্রে বিডিং বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সর্বশেষ বিডের সুতো ধরেই একজন আগ্রহী ক্রেতাকে বিড করতে হয় বা দাম হাঁকাতে হয়। নিলাম শুরুর পর থেকেই মুশফিকের ব্যাটের আগ্রহী ক্রেতার তালিকায় নীল সিনেমার সমালোচিত তারকাদের নামে ও বেনামে বিড করা হচ্ছিল, তাও রাতারাতি আকাশচুম্বী মূল্য হাঁকিয়ে। এ কারণেই নিলামে বিড করা থেকে সরে দাঁড়ায় টাইগার উডস ফাউন্ডেশন।

মুশফিকের ব্যাট কিনেছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি। তার গড়া ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মুশফিকের ব্যাট কিনেছেন প্রায় ১৭ লাখ ৮০ হাজার টাকায়।

আফ্রিদিরি প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে মুশফিক বলেন, ‘করোনা বা যেকোনো দুর্যোগেই অনেকভাবে ফাউন্ডেশন নিয়ে সহায়তা করছেন আফ্রিদি। শুধু বাংলাদেশই নয়, যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের অনেক জায়গায়ই সাহায্য করেছেন। এত বড় একজন ব্যক্তিত্ব, তার ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে আমাকে এই সাহায্য করেছেন, আমি অনেক কৃতজ্ঞ। যতটুক অর্থই আমরা পেয়েছি তা যত দ্রুত সম্ভব পুরোপুরি করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় খরচ করা হবে।’

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর