• বুধবার   ১৪ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৭

  • || ০২ রমজান ১৪৪২

দৈনিক গোপালগঞ্জ

মেগা প্রকল্প:

মেট্রো রেল যেভাবে চলবে, দেখানো হলো ডেমোতে

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৬ মার্চ ২০২১  

উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল পর্যন্ত এমআরটি লাইন-৬ এর মেট্রোরেলের ডেমো প্রদর্শনী হয়েছে। সম্প্রতি ডিপোর কনফারেন্স রুমে এই প্রদর্শনী হয়েছে। ডেমোটি গ্লাস দিয়ে ঢেকে রাখা। স্বচ্ছ গ্লাস হওয়ায় তা বাইরে থেকে স্পষ্ট দেখা যায়। ডেমোতে মেট্রোরেলের যে উপস্থাপন করা হয়েছে, এর কাজ সম্পন্ন হলে তেমনটাই হবে বলে আশা সংশ্লিষ্টদের।

দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রো রেল মূলত উড়াল। তাই মেট্রো রেল লাইনটি পিলারের ওপর স্থাপন করা হচ্ছে। এমআরটি লাইন-৬ জুড়ে পিলার বসানো সম্পন্ন হয়েছে। সেসব পিলারের ওপর ভায়াডাক্ট বসানো হচ্ছে। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত এমআরটি লাইন-৬ এর প্রথম ধাপের কাজ এরই মধ্যে শেষ হয়ে গেছে। ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট বসানোর মাধ্যমে মেট্রো রেলের ওই অংশ এখন সম্পূর্ণ দৃশ্যমান।

উদ্বোধন উপলক্ষে ডেমো মেট্রো রেল চালু করা হয়। প্রদর্শনীতে দেখা যায়, পিলারের ওপর ভায়াডাক্ট বসানো আছে। ভায়াডাক্টের ওপরে বসানো হয়েছে রেললাইন। সাধারণ লাইনের মতো সেখানেও দুটি রেললাইনের ট্র্যাক বসানো হয়েছে। দুই ট্র্যাকে দুটি ট্রেন চলাচল করছে। রেললাইনের এক ট্র্যাক দিয়ে উত্তরা থেকে মতিঝিলের দিকে মেট্রো রেল যাচ্ছে এবং আরেক ট্র্যাক দিয়ে মতিঝিল থেকে উত্তরার দিকে মেট্রো রেল আসছে।

মেট্রো রেলের পিলারের গোড়াগুলো ফুল ও গাছে সজ্জিত। আর পিলারের দুইপাশ দিয়েই যানবাহন চলাচল করছে। রাস্তার পাশে দালানকোঠা।

প্রদর্শনীতে আরও দেখা যায়, বৈদ্যুতিকভাবে মেট্রো রেল চালানোর জন্য মেট্রো রেললাইনজুড়ে থাকবে বৈদ্যুতিক লাইন। মেট্রো রেললাইনের নির্দিষ্ট দূরত্বে দুইপাশে দুটি খুঁটি এবং খুঁটি দুটি আরেকটি পাত দিয়ে সংযুক্ত থাকবে। এসবের মাধ্যমে বৈদ্যুতিক লাইন নিয়ে যাওয়া হবে। উড়াল হওয়ায় মেট্রো রেলের স্টেশনগুলোও থাকছে ওপরে।

১৭ ফেব্রুয়ারি মেট্রো রেল ডেমোর উদ্বোধন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। মেট্রো রেলের ডেমো পরিদর্শন ও উদ্বোধন করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন তিনি।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘দেখতে এসে, বিশেষ করে আমার মতো একজন বয়স্ক নাগরিক, আমি আবেগে আপ্লুত। আমরা এই কাজ দেখে যাচ্ছি। আমাদের যাদের বয়স অনেক কম, আপনারা এর পরিপূর্ণ রূপ দেখবেন কিছুদিনের মধ্যে।’

ডেমোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এম এ এন ছিদ্দিকসহ সংশ্লিষ্ট শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডেমোর পাশেই প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে মেট্রো রেলের একটি বগি। সেই বগিও পরিদর্শন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী। তিনি বগির ভেতরে প্রবেশ করেন। যাত্রীদের জন্য বগিতে থাকা আসনে বসেনও তিনি। সেখানে তিনি বগির প্রশংসা করেন।

পরিদর্শন শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘নতুন বাংলাদেশের জন্ম হচ্ছে। গত এক ঘণ্টায় আমরা আজকে সেটা ঘুরে ঘুরে দেখলাম। সামনের ১৬ ডিসেম্বর আমাদের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি। সামনের বিজয় দিবসে আমরা যেন প্রথম সেকশনটা উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ট্রেন চালু করতে পারি। কাজের যে গতি, তাতে আমরা সবাই আশাবাদী পারবো। তবুও চূড়ান্ত বলতে পারছি না যে, করবোই।’

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ