• শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
৯৭২

যাত্রীবেশে প্রাইভেটকার ছিনতাই করতেন ওরা

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

পাঠাও  চালক শামীম বেপারিকে খুন করার ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে তিনজনকে। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর আশুলিয়ায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব। তাদের কাছ থেকে নিহত শামীম বেপারির ব্যবহৃত মোবাইল ও প্যান্ট উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব জানায়, এরা পেশাদার ছিনতাইকারী। যাত্রী সেজে মোটর সাইকেল, সিএনজি ও প্রাইভেটকার ছিনতাই করতো।

র‌্যাব জানায়, আগে থেকে টার্গেট করা পাঠাও চালক শামীম বেপারিকে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি বিকেলে রাইড শেয়ারিং অ্যাপ ছাড়াই মোবাইলে ফোন দিয়ে গাবতলী থেকে আশুলিয়ায় পৌঁছে দিতে বলে মামুনুর রশিদ। রাত নয়টার দিকে আশুলিয়ার কাঠগড়া এলাকায় সুযোগ বুঝে মোটর সাইকেল থামাতে বলে, আগে থেকে ওখানে ওত পেতে থাকা মাহবুব ও মোমিন শামীমকে আক্রমণ করে। পরে গলা কেটে হত্যা করে তারা।

র‌্যাব এক কর্মকর্তা জানায়, ঘটনাস্থলে পৌঁছলে মামুন চালক শামীমকে সিগারেট খাওয়ার জন্য গাড়ি থামাতে বলে। এবং কৌশলে তাকে রাস্তার পাশে ঝোপে নিয়ে যায়। এখানে পূর্বে থেকে ওৎ মাহাবুবুর রহমান ও মমিন মিয়া ওই চালকের ওপর আক্রমণ চালায়।

আসামিরা একটি সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্র জানিয়ে র‌্যাব বলে, তারা দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীতে মোটর সাইকেল, সিএনজি ছাড়াও প্রাইভেট কার ছিনতাই করে আসছিল। র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা বলেন, অন্য ছিনতাইকারীদের মতো টাকা, মোবাইল ফোন, স্বর্ণালঙ্কার তারা ছিনতাই করে না। তারা কেবল মোটরসাইকেল, প্রাইভেটকার, সিএনজি, অটোরিক্সার মত ছোট ছোট যানবাহন ছিনতাই করে থাকে। 

একমাত্র সন্তানকে হারিয়ে দিশেহারা শামীমের পরিবার। ভিকটিম শামীমের বাবা বলেন, ওর কারণে আর কোন বাবা-মায়ের সন্তানের মৃত্যু যেন না হয়। সে জন্য তাকে মেরে ফেলা হোক।  নিহত শামীম বেপারির গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর বাঘা উপজেলায়, মা বাবা আর সন্তান সম্ভবা স্ত্রী নিয়ে রাজধানীর মেরাদিয়ায় বসবাস করতেন তিনি।
 

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
আদালত বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর