• শুক্রবার   ০৫ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২১ ১৪২৭

  • || ২২ রজব ১৪৪২

দৈনিক গোপালগঞ্জ

শিশুকে এই শীতেও হাইড্রেট রাখুন

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৫ জানুয়ারি ২০২১  

যাদের ঘরে ছোট সদস্য আছে, শীতের সময়টাতে তাদের নিতে হয় বাড়তি সতর্কতা। কেননা অতিরিক্ত ঠাণ্ডা শিশুর নানা ধরনের রোগের কারণ হতে পারে। শিশুদের শারীরিক সমস্যার মধ্যে অন্যতম হল ডিহাইড্রেশন বা জলশূন্যতা। ছোট-বড় সবারই শরীর থেকে প্রতিনিয়ত পানি বের হয়ে যায়। 

শুধু টয়লেটের সময় নয়, শ্বাস নিতে, কাঁদলে, ঘামের মাধ্যমেও ত্বক থেকে পানি বাষ্পীভূত হয়ে বেরিয়ে যায়। শীতে শিশুদের পানি বা তরল খাবার কম খাওয়ার ফলে শরীরে ডিহাইড্রেশনের সমস্যা দেখা দেয়। ডিহাইড্রেশন হওয়া মানে শরীরে তরলের ঘাটতি ঘটছে, যা শরীরের সঠিকভাবে কাজে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। অনেকসময় যা মস্তিষ্কের ক্ষতি, এমনকি মৃত্যুর কারণও হতে পারে। তাই ডিহাইড্রেশন হচ্ছে কিনা, তা নজর রাখতে হবে। 

এছাড়াও জ্বর, বমি, ডায়ারিয়া, অতিরিক্ত ঘাম, অসুস্থতার কারণে তরল কম খাওয়া, গরম আবহাওয়ার কারণে ডিহাইড্রেশন হতে পারে। ডিহাইড্রেশনের লক্ষণ হচ্ছে-  শিশুর পেটের সমস্যা, বমি, খাওয়ায় অরুচি প্রস্রাব কমে যাওয়া বা একদমই না করা গাঢ় রঙের ইউরিন শুষ্ক, ফাটা ঠোঁট চামড়া শুকিয়ে যাওয়া কাঁদলেও বাচ্চার চোখে জল না আসা মুখ শুকিয়ে যাওয়া এনার্জি লেভেল কমে যাওয়া হার্ট রেট বেড়ে যাওয়া

শিশুর ডিহাইড্রেশন হলে যা করবেন- 

> শিশুকে স্যুপ, তরল জিনিস বেশি করে দিন 

> ডিহাইড্রেশন হলে কলা, ভাত খেতে দিতে পারেন।

> শিশু বুকের দুধ খেলে বন্ধ করবেন না।

> পাশাপাশি ফলের রস, পানি খাওয়াতে পারেন। 

কখন চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাবেন

যদি দেখেন শিশুর সমস্যা বাড়ছে তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ডিহাইড্রেশন মারাত্মক আকার নিলে যে সমস্যাগুলো হবে - ইউরিন তিন ঘণ্টার বেশি না হওয়া মুখ শুকিয়ে যাওয়া মলের সঙ্গে রক্ত বের হলে ১০২-এর ওপর জ্বর থাকলে পেটে বা মলদ্বার ব্যথা অনেক সময় ভাইরাল ইনফেকশনের জন্যও আপনার বাচ্চার ডিহাইড্রেশন হতে পারে। বাচ্চার ওপর সবসময় নজর রাখুন, তাহলে মারাত্মক আকার নেয়ার আগেই ধরা পড়ে যাবে ডিহাইড্রেশন।  

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ