• শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
১৫৮

১০ মিনিটেই পাবেন লাখ লাখ লাইক-কমেন্ট!

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৯ মার্চ ২০২০  

অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের জনপ্রিয়তার জন্য ছবি, স্ট্যাটাস ইত্যাদি দিয়ে থাকেন। এসব ছবি বা পোস্টে কতটা লাইক বা কমেন্ট পড়ছে তা দিয়ে নিজেদের জনপ্রিয়তা যাচাই করে। এবার তাদের জন্য এল দারুণ সুযোগ। মাত্র ১০ মিনিটেই ২ লাখ লাইক ও ১০০ কমেন্ট পাওয়ার এক অভাবনীয় পদ্ধতি
এজন্য প্রথমেই একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। এরপর নাম এবং ছবি দিয়ে সাইনআপ করলেই লাখ-লাখ ‘ব্যবহারকারী’ আপনাকে লাইক দেবে। ঝাঁকে ঝাঁকে পড়বে কমেন্ট। এরপর স্ট্যাটাস দিলেও হবে একই অবস্থা। নিজেকে মনে হবে তুমুল জনপ্রিয় কোনও তারকা!
এই অ্যাপটির নাম বটনেট (Botnet)। অদ্ভুত এক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ঘরানার অ্যাপ। ডাউনলোড করলে সত্যিকারের কোনও মানুষ আপনার বন্ধু হবে না। লাখ-লাখ ‘প্রশিক্ষিত বট’ আপনার তালিকায় যুক্ত হবে।
প্রযুক্তি জগতে ওয়েব রোবটকে সংক্ষেপে ‘বট’ বলা হয়। এটি মূলত এক ধরনের স্বয়ংক্রিয় সফটওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন, যা ইন্টারনেটর মাধ্যমে কাজ করে। বিশেষ কাজের জন্য বিশেষ ধরনের ‘বট’ প্রোগ্রাম ব্যবহার করা হয়। কিছু ‘বট’ নিজে থেকেই কাজ করে আবার কিছু ‘বট’ কাজ করে যখন কেউ ইনপুট ব্যবহার করে। কিছু ম্যালিসিয়াস ‘বট’ আছে যা কম্পিউটার হ্যাক করতে পারে।
এভাবে লাখ-লাখ বটের সমন্বয়ে বটনেট অ্যাপটি তৈরি করেছেন নিউইয়র্কের বিলি চেসেন। তার মজার অ্যাপটি গত ফেব্রুয়ারিতে প্লেস্টোরে আসে। মাত্র কয়েক দিনের ভেতরে ১০ লাখের বেশি মানুষ ডাউনলোড করেছেন।
একটি স্ট্যাটাস দেওয়ার মিনিট দশেকের ভেতর লাখ দুয়েকের মতো লাইক পড়তে দেখা গেছে!
অ্যাপের ওয়েবসাইটে লেখা আছে, বটনেট একটি সামাজিক নেটওয়ার্ক সিমুলেটর, যেখানে লাখ লাখ বটের সঙ্গে আপনি একমাত্র মানুষ, যারা আপনার প্রতি অন্ধ।
ইন্টারনেট সিস্টেমকে ধ্বংস করতে এতদিন বটের ব্যবহার বেশি দেখা গেছে। বিলি চেষ্টা করেছেন বট সংক্রান্ত এই ধারণায় পরিবর্তন আনতে। প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবলকে তিনি মেইলে বলেন, বটকে কীভাবে ভালো কাজে ব্যবহার করা যায়, আমি সেই চেষ্টা করেছি।
এ ধরনের অ্যাপ তৈরির পেছনে বিলির আরেকটি উদ্দেশ্য আছে। টুইটার, ফেইসবুকে যারা কম জনপ্রিয়, তাদের জনপ্রিয়তার স্বাদ দিতে চেয়েছেন তিনি। দূর করতে চেয়েছেন একাকিত্ব।
বটনেট বিনা মূল্যে ডাউনলোড করা যায়। একই সঙ্গে ব্যবহারকারী চাইলে অর্থের বিনিময়ে বিশেষ কিছু ফিচারও ব্যবহার করতে পারবেন।
এ ধরনের ফেক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম প্রযুক্তিবিশ্বে আগেও দেখা গেছে। ২০১৭ সালে বিনকি নামের আরেকটি মাধ্যম দেখা যায়। সেখানেও সত্যিকারের কোনো মানুষ নেই; অথচ বিভিন্ন পোস্ট পড়া যায়, দেখা যায়।
এই ধারণাকে একধাপ ছাড়িয়ে গেছে বটনেট। পোস্ট দিয়ে এভাবে লাইক-কমেন্ট পাওয়া যায়, সেটা আগে ভাবা যায়নি।
বটনেট ফেইসবুকের মতো কোম্পানির চেয়ে ‘বেশি’ নিরাপদ। প্রতিষ্ঠাতা বিলির দাবি, মানুষ কী পোস্ট করছে, সেটি আমরা ফেইসবুকের মতো রেকর্ড করি না। ইনস্টলের পর মৌলিক কিছু ম্যাট্রিকস থাকছে। আর ব্যবসার জন্য অর্থের বিনিময়ে আপগ্রেডের সুযোগ রাখা হয়েছে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর