• শুক্রবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৩ ১৪২৭

  • || ৩০ মুহররম ১৪৪২

দৈনিক গোপালগঞ্জ
২৫

১৪৯/৮ থেকে ২৩১/৯ : ১৪৪/২ থেকে ২০৭ অলআউট!

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০  

কথায় আছে, ‘শেষ ভালো যার, সব ভালো তার’- এ কথাটি পুরোপুরি মিলে গেলো অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে। যেখানে ম্যাচের দুই ইনিংসের শুরুটা দুর্দান্ত করেও শেষটা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া, যার ফলে আসেনি কাঙ্ক্ষিত জয়।

রোববার রাতে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে অস্ট্রেলিয়াকে ২৪ রানে হারিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। আগে ব্যাট করে ২৩১ রান করেছিল স্বাগতিকরা, জবাবে অস্ট্রেলিয়ার অলআউট হয়েছে ২০৭ রানে। অথচ দুই ইনিংসেই একপর্যায়ে যোজন দূরত্বে এগিয়ে ছিল অসিরা।

ম্যাচের প্রথম ইনিংসে টস জিতে ব্যাট করতে নামা ইংল্যান্ডের পক্ষে স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান ৪২ ও জো রুটের ৩৯ ব্যতীত আর কেউই বলার মতো কিছু করতে পারেননি। ফলে ইনিংসের ৪১তম ওভারে মাত্র ১৪৯ রানেই ৮ উইকেট হারিয়ে বসে স্বাগতিকরা। দুর্দান্ত বোলিংয়ে সিরিজ জিতে নেয়ার সম্ভাবনা জাগায় অস্ট্রেলিয়া।

এরপরই প্রতিরোধ গড়েন লেজের দিকের দুই ব্যাটসম্যান (আদতে বোলার) আদিল রশিদ ও টম কুরান। এ দুই বোলারের নবম উইকেট জুটিতে মাত্র ৫৭ বলে ৭৬ রান পায় ইংল্যান্ড। টম কুরান ৩৭ রান করে আউট হলেও, আদিল রশিদ অপরাজিত থাকেন ২৬ বলে ৩৫ রান করে। ইংল্যান্ড পায় ৯ উইকেটে ২৩১ রানের সংগ্রহ।

অর্থাৎ প্রথম ৪০.১ ওভারে যেখানে ৮ উইকেটে মাত্র ১৪৯ রান করে ইংল্যান্ড, সেখানে শেষের ৫৯ বলে মাত্র ১ উইকেট হারিয়ে তারা পায় আরও ৮২ রান।

তবু যে সংগ্রহ খুব বড় ছিল এমনটা নয়। বর্তমান সময়ের ওয়ানডে ক্রিকেটে ২৩২ রান তাড়া করে ম্যাচ জেতা অনেকটা ‘ডালভাত’ ব্যাপার যেকোনো দলের জন্য। সে লক্ষ্যে শুরুটাও দুর্দান্ত ছিল অস্ট্রেলিয়ার। একপর্যায়ে ২ উইকেটে করে ফেলে ১৪৪ রান।

শুরুতে ৩৭ রানের মাথায় ডেভিড ওয়ার্নার (১১ বলে ৬) ও মার্কাস স্টয়নিস (১৪ বলে ৯) ফিরে গেলেও, তৃতীয় উইকেটে হাল ধরেন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ও মার্নাস লাবুশেন। তাদের দুজনের ২৩ ওভারের জুটিতে আসে ১০৭ রান। ইনিংসের ৩১তম ওভারের চতুর্থ বল পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ছিল ২ উইকেটে ১৪৪ রান।

অর্থাৎ ৮ উইকেট হাতে রেখে শেষের ১১৬ বলে জয়ের জন্য করতে হতো মাত্র ৮৮ রান। কিন্তু এরপরই ভয়াবহ ব্যাটিং ধ্বস। মাত্র ২১ বলের ব্যবধানে ৩ রান তুলতেই সাজঘরে ফিরে যান অস্ট্রেলিয়ার চার ব্যাটসম্যান। ফিফটি পেরিয়ে ৭৩ রানে আউট হন অধিনায়ক ফিঞ্চ, লাবুশেন থামেন ৪৮ রান করে।

ব্যর্থ হন আগের ম্যাচের নায়ক মিচেল মার্শ (১) ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (১)। ফলে ২ উইকেটে ১৪৪ থেকে ৬ উইকেটে ১৪৭ রানের দলে পরিণত হয় অস্ট্রেলিয়া। বাকি কাজ আর সারতে পারেননি নিচের সারির ব্যাটসম্যানরাও। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান অ্যালেক্স ক্যারে চেষ্টা করেছিলেন।

কিন্তু শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ৪১ বলে ৩৬ রান করে আউট হওয়ার সময়েও ২৪ রান পিছিয়ে ছিল অস্ট্রেলিয়া। অর্থাৎ মাত্র ৬৩ রানেই নিজেদের শেষ ৮ উইকেট হারিয়ে বসে অস্ট্রেলিয়া এবং হাতছাড়া করে সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলার সহজ সুযোগ।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর