• মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৭

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক গোপালগঞ্জ
৯৪

২০ সালের প্রতীক্ষিত ২০ চলচ্চিত্র

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৪ জানুয়ারি ২০২০  

কোন ছবিগুলো আগামী ১২ মাস দর্শকদের নাড়া দিতে পারে সেই ভবিষ্যদ্বাণী করা যাক। বিদ্রুপাত্মক থেকে শুরু করে ব্লকবাস্টার ছবির সিক্যুয়েল আছে এই তালিকায়। এর মধ্যে চলচ্চিত্র দুনিয়ার কয়েকজন হেভিওয়েট তারকার ফেরা দেখা যাবে এসব ছবিতে। নতুন বছরে যে ২০টি ছবি না দেখলে মিস করবেন সেগুলোর টুকরো তথ্য দেওয়া হলো।


জোজো র‌্যাবিট (১ জানুয়ারি)
কিউই নির্মাতা তাইকা ওয়াইতিতি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে ছবিটি নির্মাণ করেছেন। এক নাৎসী বালকের (রোমান গ্রিফিন ডেভিস) মা একটি ইহুদি মেয়েকে নিজেদের বাড়ির চিলেকোঠায় লুকিয়ে রাখেন। তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। ছেলেটির কাল্পনিক বন্ধু হিটলারের চরিত্রে আছেন তাইকা নিজেই।
নাইনটিন সেভেনটিন (১০ জানুয়ারি)

 

জেমস বন্ড সিরিজের সবশেষ দুই ছবি ‘স্কাইফল’ ও ‘স্পেক্টর’ আর ‘আমেরিকান বিউটি’র পরিচালক স্যাম মেন্ডেস প্রথম বিশ্বযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে সাজিয়েছেন ‘নাইনটিন সেভেনটিন’। দাদার কাছ থেকে শোনা গল্প অবলম্বনে এটি তৈরি করেছেন তিনি। ছবিটি দেখলে মনে হবে সিঙ্গেল শটে ধারণ করা। এর গল্প দুই ব্রিটিশ সৈন্যকে ঘিরে। কমরেডদের ওপর বিধ্বংসী হামলা ঠেকাতে জীবনবাজি রাখে তারা। এ দুটি চরিত্রে আছেন জর্জ ম্যাককে ও ডিন-চার্লস চ্যাপম্যান। এছাড়াও অভিনয় করেছেন বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচ, কলিন ফার্থ ও অ্যান্ড্রু স্কট।
বোম্বশেল (১৭ জানুয়ারি)

ফক্স নিউজের প্রতিষ্ঠাতা রজার অ্যাইলস যৌন হয়রানির কেলেঙ্কারিতে নেটওয়ার্কটি থেকে সরে যেতে বাধ্য হন। ২০১৬ সালের এ ঘটনাকে উপজীব্য করে আমেরিকার জে রোচ নির্মাণ করেছেন ‘বোম্বশেল’। অভিনয়ে নিকোল কিডম্যান, শার্লিজ থেরন ও মার্গট রবি। তিনজনের চরিত্রই যৌন হয়রানির অভিযোগ তোলা নারীর। রজার অ্যাইলস হিসেবে আছেন জন লিথগো। মিডিয়া মোগল রুপার্ট মারডকের ভূমিকায় ক্ষণিকের জন্য উপস্থিত হবেন ম্যালকম ম্যাকডাউয়েল।
দ্য লাইটহাউস (৩১ জানুয়ারি)

উদ্ভট মনস্তাত্ত্বিক থ্রিলারধর্মী ছবিটির মুখ্য দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন দুই প্রজন্মের দুই অভিনেতা রবার্ট প্যাটিনসন ও উইলেম ড্যাফো। নিউ ইংল্যান্ডের প্রত্যন্ত একটি লাইটহাউসের রক্ষক তারা। বিচ্ছিন্নতায় বসবাস করা এই দু’জনের মধ্যে একসময় মতবিরোধ দেখা দেয়। ২০১৫ সালে ভৌতিক ছবি ‘দ উইচ’ দর্শক মাতানোর পর রবার্ট এগারস এবার পরিচালনা করেছেন সাদাকালো ছবিটি। এর অভিজ্ঞতা ব্যাটম্যানের পোশাক গায়ে জড়ানোর পর কাজে লাগবে প্যাটিনসনের।
বার্ডস অব প্রে (৭ ফেব্রুয়ারি)

২০২১ সালের আগে ফিরছে না ব্যাটম্যান। তার অনুপস্থিতিতে বড় পর্দা মাতাবে ডিসি কমিকসের ভিলেন হার্লি কুইন। ২০১৬ সালে ‘সুইসাইড স্কোয়াড’ ছবিতে জোকার রূপী জারেড লেটোর সঙ্গে দেখা গেছে তাকে। এ চরিত্রে যথারীতি অভিনয় করেছেন মার্গট রবি। ক্যাথি ইয়ান পরিচালিত কমেডি থ্রিলার ‘বার্ডস অব প্রে’র ভিলেন ইউয়ান ম্যাকগ্রেগর। এবারই প্রথম আমেরিকান সুপারহিরো ছবি বানালেন এশিয়ার একজন নারী।
গ্রিড (২১ ফেব্রুয়ারি)
আমেরিকান পরিচালক মাইকেল উইন্টারবটম ও অভিনেতা স্টিভ কুগ্যানের জুটি উপহার দিয়েছে ‘টোয়েন্টি ফোর আওয়ার পার্টি পিপল’ (২০০২), ‘দ্য লুক অব লাভ’ (২০১৩), টিভি সিরিজ ‘দ্য ট্রিপ’ (২০১০)। এবার তারা নিয়ে আসছেন ‘গ্রিড’। এতে ফ্যাশন ব্যবসায়ী স্যার রিচার্ড ম্যাকক্রিডির চরিত্রে অভিনয় করেছেন কুগ্যান। গল্পে গ্রিসের মাইকোনোস দ্বীপে ৬০তম জন্মদিন উদযাপনের জন্য যান তিনি।
মুলান (২৭ মার্চ)

২০১৯ সালে ‘ডাম্বো’, ‘লেডি অ্যান্ড দ্য ট্র্যাম্প’, ‘আলাদিন’ ও ‘দ্য লায়ন কিং’সহ অ্যানিমেটেড ছবির লাইভ অ্যাকশন রিমেক হয়েছে। ২০২০ সালে ডিজনির ১৯৯৮ সালের অ্যানিমেশন ‘মুলান’ যোগ হচ্ছে এই তালিকায়। এতে দেখা যাবে এক তরুণী অসুস্থ বাবার জায়গায় লড়াই করতে পুরুষের ছদ্মবেশ ধারণ করে। এ চরিত্রে আছেন চীনা-আমেরিকান অভিনেত্রী লিউ ইফেই। নিকি কারো পরিচালিত ছবিটিতে আরও অভিনয় করেছেন জেসন স্কট লি, জেট লি ও ডনি ইয়েন।
নো টাইম টু ডাই (৩ এপ্রিল)

ব্রিটিশ নির্মাতা ড্যানি বয়েলের সরে যাওয়া, অভিনেতা ড্যানিয়েল ক্রেগের গোড়ালির ইনজুরি, বিস্ফোরণের শুটিংয়ে ক্রু সদস্যের আহত হওয়াসহ কোনও কিছুই বন্ড ফ্র্যাঞ্চাইজির ২৫তম ছবিকে আটকাতে পারেনি। ক্যারি জোজি ফুকুনাগার পরিচালনায় এতে শেষবারের মতো জিরো জিরো সেভেন হিসেবে ফিরছেন ক্রেগ। এর গল্পে দেখা যাবে, বিপজ্জনক এক শত্রুকে মোকাবিলার জন্য আবারও ডাকা পড়ে অবসরে যাওয়া বন্ডের। ছবিটির ভিলেন ‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’র মাধ্যমে অস্কার জিতে নেওয়া রামি মালেক।
ব্ল্যাক উইডো (১ মে)

‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’ ছবিতে নাতাশা রোমানফের কষ্টদায়ক পরিণতি ঘটেছে। তবে ব্ল্যাক উইডো চরিত্রে আবারও ফিরছেন স্কারলেট জোহানসন। ‘অ্যাভেঞ্জার্স’ ছবিগুলোর আগের প্রেক্ষাপটে তৈরি হয়েছে এটি। এতে তুলে ধরা হয়েছে নাতাশার রহস্যময় অতীত। কেট শর্টল্যান্ড পরিচালিত ছবিটিতে আরও আছেন ফ্লোরেন্স পিউ ও র‌্যাচেল ভাইস। ২০২০ স্কারলেটের জন্য দারুণ কাটবে বলে আশা করা হচ্ছে। ‘জোজো র‌্যাবিট’ কিংবা ‘ম্যারেজ স্টোরি’র জন্য অস্কার মনোনয়ন পেতে পারেন তিনি।
ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস নাইন (২২ মে)
ভিন ডিজেল, মিশেল রড্রিগেজ ও টাইরিস গিবসন আবারও একসঙ্গে ফিরছেন। জাস্টিন লিন পরিচালিত ছবিটির শুটিং হয়েছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, জর্জিয়া ও থাইল্যান্ডে। এর মধ্যে হার্টফোর্ডশায়ারের ওয়ার্নার ব্রাদার্স স্টুডিওসে কাজ করার সময় একজন স্টান্টম্যান আহত হন।
ওয়ান্ডার ওম্যান নাইনটিন এইটি ফোর (৫ জুন)

২০১৭ সালের ‘ওয়ান্ডার ওম্যান’ ছবির সিক্যুয়েলটি তৈরি হয়েছে ১৯৮৪ সালের প্রেক্ষাপটে। এবারও নাম ভূমিকায় আছেন গল গ্যাদত। এতে চিতা (ক্রিস্টেন উইগ) নামের এক ভয়ঙ্কর নারীর বিরুদ্ধে হিসেবে লড়তে দেখা যাবে তাকে। ছবিটিতে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পাইলট স্টিভ ট্রেভর চরিত্রে যথারীতি থাকছেন ক্রিস পাইন। যদিও আগের ছবিতে তার মৃত্যু দেখানো হয়েছিল। এছাড়া অভিনয় করেছেন ডিজনি প্লাসের স্টার ওয়ারস সিরিজ ‘দ্য ম্যান্ডালোরিয়ান’ তারকা পেড্রো প্যাসকাল।
সৌল (১৯ জুন)

‘ইনসাইড আউট’ ছবিতে আবেগের রূপক কিছু চরিত্রের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন পিট ডক্টর। এবার ‘সৌল’ নিয়ে আসছেন আমেরিকার এই নির্মাতা। এটি পরিবেশনা করবে পিক্সার। উঠতি সংগীতশিল্পী জো’কে (জেমি ফক্স) ঘিরেই এর গল্প। একদিন গর্তে পড়ার পর আত্মা থেকে আলাদা হয়ে যায় সে। এরপর আত্মাদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে নিজেকে আবিষ্কার করে জো। সেখানে আরেক আত্মার (টিন ফে) সঙ্গে মিলে মানুষের মধ্যে ফেরার চেষ্টা করতে থাকে সে।
গোস্টবাস্টার্স ২০২০ (১০ জুলাই)

১৯৮৪ সালে ‘গোস্টবাস্টারস’ ও ১৯৮৯ সালে ‘গোস্টবাস্টারস টু’ ছবি দুটি নির্মাণ করেন আইভ্যান রাইটম্যান। ২০১৬ সালে মুক্তি পেয়েছিল নারী চরিত্র নির্ভর নতুন ‘গোস্টবাস্টারস’। এবার আসছে ‘গোস্টবাস্টার্স: আফটার লাইফ’। এটি পরিচালনা করেছেন আইভ্যানের ছেলে জেসন রাইটম্যান। অভিনয়ে পল রুড, ক্যারি কুন ও ‘স্ট্রেঞ্জার থিংস’ তারকা ফিন উলফহার্ড। ভক্তদের জন্য সুখবর হলো, মূল ‘গোস্টবাস্টারস’ ছবির তিন অভিনয়শিল্পী বিল মারে, সিগার্নি ওয়েভার ও ড্যান অ্যাকরয়েড।
টপ গান: ম্যাভেরিক (১৭ জুলাই)


‘মিশন: ইমপসিবল’ সিরিজ থেকে বিরতি নিয়েছেন টম ক্রুজ। এবার আরেক বিখ্যাত চরিত্র পাইলট পিট মিচেল চরিত্রে ফিরছেন তিনি। জোসেফ কসিনস্কি পরিচালিত ছবিটিতে সাবেক সতীর্থ গুজের ছেলের প্রশিক্ষণদাতার দায়িত্বে পাওয়া যাবে তাকে। এতে আরও আছেন মাইলস টেলার, জেনিফার কনোলি ও এড হ্যারিস। এটি হলো ১৯৮৬ সালের ‘টপ গান’-এর সিক্যুয়েল। এবারের পর্বকে বলা হচ্ছে এভিয়েশনের প্রতি প্রেমপত্র।
বিল অ্যান্ড টেড ফেস দ্য মিউজিক (২১ আগস্ট)
২৯ বছর পর আবারও বিল এস. প্রেস্টন এস্কোয়ার ও টেড থিওডোর লগ্যান চরিত্রে ফিরছেন যথাক্রমে অ্যালেক্স উইন্টার ও কিয়ানু রিভস। গানপাগল ও পার্টিপ্রেমী দুই বন্ধু মধ্যবয়সে এসে উপলব্ধি করে, তাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী জীবনটা হয়নি। এর আগে “বিল অ্যান্ড টেড’স এক্সিলেন্ট অ্যাডভেঞ্চার” (১৯৮৯) ও “বিল অ্যান্ড টেড’স বোগাস জার্নি” (১৯৯১) ছবিতে দেখা গেছে তাদের। এর মধ্যে উল্লিখিত দ্বিতীয় ছবির অভিনেতা উইলিয়াম স্যাডলার ফিরছেন গ্রিম রিপার চরিত্রে।
ডেথ অন দ্য নীল (৯ অক্টোবর)
স্যার কেনেথ ব্র্যানা আবারও একঝাঁক তারকার সমাবেশ ঘটিয়েছেন। ‘মার্ডার অন দ্য ওরিয়েন্ট এক্সপ্রেস’ ছবির পর আগাথা ক্রিস্টির ‘হারকিউল পয়রট’ নিয়ে কাজ করছেন তিনি। এর নাম ‘ডেথ অন দ্য নীল’। মিসরের নীলনদে একটি বিলাসবহুল নৌযানে একটি খুনের তদন্তকে ঘিরে এগোয় কাহিনি। এ ছবিতে থাকছেন গল গ্যাডট, লেটিটিয়া রাইট, আর্মি হ্যামার, অ্যানেট বেনিং, রাসেল ব্র্যান্ড, আলি ফজলসহ অনেকে।  
এভরিবডি’স টকিং অ্যাবাউট জেমি (২১ অক্টোবর)
১৫ বছরের কিশোর জেমি ক্যাম্পবেল একদিন স্কুলের বার্ষিক অনুষ্ঠানের জন্য আনা পোশাক গায়ে জড়ায়। তখন সে কল্পনাও করেনি তার জীবন অবলম্বনে মঞ্চে সংগীতনির্ভর নাটক তৈরি হবে। এরপর তাতে অনুপ্রাণিত হয়ে বানানো ছবিতে অভিনয় করেন রিচার্ড ই গ্র্যান্ট, সারাহ ল্যাঙ্কাশায়ার ও শ্যারন হরগ্যান। এই সত্যি ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ছবিতে নাম ভূমিকায় আছেন ম্যাক্স হারউড। এছাড়াও অভিনয় করেছেন জন ম্যাকক্রিয়া ও লেটন উইলিয়ামস।
এটারনালস (৬ নভেম্বর)
মার্ভেল সিনেম্যাটিক ইউনিভার্সের একদল অমর সুপারহিরোকে নেতৃত্ব দিতে আসছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। তার সঙ্গে থাকবেন সালমা হায়েক, রিচার্ড ম্যাডেন, কুমাইল নানজিয়ানি। ছবিটি পরিচালনা করছেন ক্লোয়ি জাও।
ডুন (১৮ ডিসেম্বর)
ফ্রাঙ্ক হার্বার্টের বিখ্যাত সাই-ফাই উপন্যাস অবলম্বনে ১৯৮৪ সালে একটি ছবি নির্মাণ করেন ডেভিড লিঞ্চ। ২০০০ সালে মুক্তি পায় একটি টিভি মিনি সিরিজ। এবার কানাডার ডেনিস ভিলন্যুভ তৈরি করছেন ‘ডুন’। এতে আছেন টিমোথি শালামে, রেবেকা ফার্গুসন, অস্কার ইসাক ও হাভিয়ার বারদেম।
ওয়েস্ট সাইড স্টোরি (১৮ ডিসেম্বর)
স্টিভেন স্পিলবার্গের দীর্ঘদিনের আকাঙ্ক্ষা ছিল সংগীতনির্ভর ছবি পরিচালনা করা। অবশেষে তা সত্যি হলো। পঞ্চাশের দশকের ধ্রুপদী মঞ্চনাটক ‘ওয়েস্ট সাইড স্টোরি’ অবলম্বনে ছবিটি বানিয়েছেন তিনি। নিউ ইয়র্কের দুটি দলকে ঘিরে এর গল্প। ১৯৬১ সালে নির্মিত ‘ওয়েস্ট সাইড স্টোরি’র সুবাদে অস্কার জেতা রিটা মোরেনো অভিনয় করেছেন স্পিলবার্গের ছবিতে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ