• শুক্রবার   ১৬ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৩ ১৪২৮

  • || ০৫ রমজান ১৪৪২

দৈনিক গোপালগঞ্জ

৫ টি উপায়ে ভুড়ি কমিয়ে সুস্থ থাকুন।

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২ মার্চ ২০২১  

ধীরে ধীরে খাওয়া : শরীরে ক্যালরি বেশি হওয়ার কারণ বেশি খাওয়া। আর বেশি খাওয়ার কারণ হচ্ছে তাড়াতাড়ি খাওয়া। আপনার পেট ভরে গেছে সেই সংকেত আপনার মাথায় পেীছায় খাওয়া শুরু করার ২০ মিনিট পর। কিন্তু আমরা ৫ মিনিটে খাওয়া হয়ে যায় যার ফলে আমরা না জেনে বেশি ক্যালোরি গ্রহন করে ফেলি। আপনি যদি ধীরে ধীরে খাওয়া শুরু করেন তাহলে আপনি দিনে ২০১ মিলি ক্যালোরি কম গ্রহন করবেন। যারা দ্রুত খাবার গ্রহন করে তারা খুব তাড়াতাড়ি খাবার গ্রহন করে তাদের খুব দ্রুত খিদা লাগবে। তাই ধীরে ধীরে খাওয়ায় ভালো।

ছোট প্লেট ব্যবহার করুন : প্লেটের সাইজ যদি ৩০% কম হয় তবে আপনার ক্যালোরি ৩০% কম হবে। এই ক্ষেত্রে নিজের খাদ্য নিজে নিয়ে খেতে হবে। আবার আপনি যখন খাচ্ছেন তখন কেউ দেখছে কিনা বা আপনি মনিটর করবেন না। এভাবে আপনি ৩০% পর্য্ন্ত ওয়েট লস করতে পারবেন।

খালি পেটে কার্ডিও : সকালে খাটি পেটে যেকোন কার্ডিও ব্যায়াম করলে আপনার ১০% পর্য্ন্ত ক্যালোরি কমতে পারে। কার্ডিও ব্যায়াম তাকে বলা হয় যেগুলো আপনার হার্ট্ রেট কে বাড়িয়ে তোলে।  সকালে খালি পেটে ব্যায়াম করলে আপনার ক্যালোরি বেশি খরচ হয়। কারণ আপনি ব্যায়াম করলে আপনার শরীর শক্তি চায়। কিন্তু পেট খালি থাকলে পেটের চর্বি এটা সরবরাহ করে।

খাওয়ার সময় পানি না খাওয়া : আমাদের একটি খারাপ অভ্যাস হচ্ছে খাওয়ার সময় খেতে খেতে পানি পান করা। খাওয়ার সময় পাকস্থলিতে যে পাচক রস থাকে পানি পান করলে তা কমে যায়। যার ফলে খাবার ঠিক ভাবে হজম না হয়ে শরীরে শোষিত হয়ে যায়। যার ফলে শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা বেড়ে যায়। তাই খাওয়ার ৩০ মিনিট আগে এবং খাওয়ার ১ ঘন্টা পর পানি পান করা উচিত।

কখনো পেটে খিদা রাখবেন না : আপনি খাবার খাবেন কিন্তু অতিরিক্ত খাবেন না। আর পেটে যতটুকু সম্ভব খিদা না রখোর চেষ্টা করতে হবে। যখন আমরা খুর্ধাত থাকি তখন আমরা অনেকটা খাবার খেয়ে ফেলি। তাই আপনাকে সবসময় পেট ভরা রেখে দিতে হবে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ