• রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

দৈনিক গোপালগঞ্জ

খুলল বেনজীরের সাভানা পার্কের দ্বার, যত টাকা প্রবেশ ফি

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৫ জুন ২০২৪  

সাবেক পুলিশপ্রধান বেনজীর আহমেদের গোপালগঞ্জের সাভানা ইকো রিসোর্ট অ্যান্ড ন্যাচারাল পার্ক দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। আগের মতো ১০০ টাকা গেট ফি দিয়ে পার্কের ভেতরে প্রবেশ করতে পারবেন দর্শনার্থীরা। খুলে দেওয়া হবে পার্কের বিভিন্ন রাইড। তবে বন্ধ থাকবে কটেজ।

শনিবার সকাল ১০টার দিকে ১০ দিন বন্ধ থাকার পর জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয় পার্কটি। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পার্কের রিসিভার ও জেলা মৎস কর্মকর্তা বিজন কুমার নন্দী। 

জানা যায়, পার্কটি খুলে দেওয়ায় দর্শনার্থীরা আগের মতো ১০০ টাকা গেট ফি দিয়ে পার্কের ভেতরে প্রবেশ করে ঘুরতে পারবেন। দর্শনার্থীদের বিনোদনের জন্য পার্কের বিভিন্ন রাইডও খুলে দেওয়া হবে। তবে বন্ধ থাকবে কটেজ। আর এ পার্ক থেকে আয়ের সব টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেওয়া হবে।

গত ৪ জুন সার্ভার জটিলতা দেখিয়ে সাময়িকভাবে পার্ক বন্ধ করে দিয়েছিল কর্তৃপক্ষ। এরপর থেকে পার্কটি বন্ধ ছিল। ৭ জুন রাতে আদালতের নির্দেশে রিসিভার নিয়োগ করে পার্কটির নিয়ন্ত্রণ নেয় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসন। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার সাভানা ইকো রিসোর্ট অ্যান্ড ন্যাচারাল পার্ক রক্ষণাবেক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম তদারকির জন্য কমিটি গঠন করেছে দুদক। বৃহস্পতিবার দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (মানিলন্ডারিং) মো. নূর-ই-আলম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানা গেছে।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, সাভানা ইকো রিসোর্ট অ্যান্ড ন্যাচারাল পার্ক গোপালগঞ্জ সদর (সাহাপুর ইউনিয়নের বৈরাগীটোল গ্রাম), গোপালগঞ্জের আওতাধীন সব সম্পদ রক্ষণাবেক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম তদারকি ও রিসিভারদের কর্তৃক পার্কের সামগ্রিক কার্যক্রমসহ যাবতীয় বিষয়াদি যথাযথভাবে পর্যবেক্ষণ ও তদারকির লক্ষ্যে দুর্নীতি দমন কমিশন বিধিমালা ২০০৭-এর ১৮ গ (৩) বিধি অনুযায়ী নিম্নবর্ণিত কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে কমিশন কর্তৃক কমিটি গঠন করা হলো।

জেলা প্রশাসক কাজী মাহবুবুল আলমকে আহ্বায়ক ও দুর্নীতি দমন কমিশনের গোপালগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. মশিউর রহমানকে সদস্য সচিব করে ৬ সদস্যের এ কমিটি করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যারা হলেন- গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার আল-বেলী আফিফা, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দেবপ্রসাদ পাল, গণপূর্ত অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুল হাসান, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর গোপালগঞ্জ জেলা কমান্ড্যান্ট ফজলে রাব্বি।

পর্যবেক্ষণ ও তদারকির কমিটির সদস্য সচিব ও দুর্নীতি দমন কমিশনের গোপালগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. মশিউর রহমান বলেন, শনিবার জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে পার্কটি খুলে দেওয়া হয়। বিকেলে নবগঠিত পার্ক পর্যবেক্ষণ ও তদারকির কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে।

কমিটিকে বর্ণিত রিসোর্ট ও পার্কের সব সম্পদ রক্ষণাবেক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম তদারকি এবং রিসিভারদের কর্তৃক পার্কের সামগ্রিক কার্যক্রমসহ যাবতীয় বিষয়াদি যথাযথভাবে পর্যবেক্ষণ ও তদারকির জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়। কমিটি তাদের কার্যক্রম নিয়মিতভাবে কমিশনকে অবহিত করবে বলেও ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ