• শুক্রবার   ২০ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪২৯

  • || ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩

দৈনিক গোপালগঞ্জ

সুন্দরবনে বিলুপ্তপ্রজাতির বাটাগুর বাস্কা কচ্ছপের ৩৩টি বাচ্চা জন্ম

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৭ মে ২০২২  

সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে একটি বিলুপ্তপ্রজাতির বাটাগুর বাস্কা কচ্ছপের দেয়া ৩৪টি ডিমের মধ্যে ৩৩টি বাচ্চা ফুটেছে। শনিবার সকালে স্যান্ডবিচ (বালুর চর) থেকে এক এক করে বাচ্চাগুলো ডিম থেকে বের হবার পর তুলে রাখা হয়েছে সংরক্ষণ প্যানে (ছোট পুকুর আকৃতি)।

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাওলাদার মো. আজাদ কবির জানান, করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের পুকুর পাড়ের স্যান্ডবিচে একটি বিলুপ্ত প্রজাতির বাটাগুর বাস্কা কচ্ছপ ৩৪টি ডিম দেয়। এরপর ৭ মে শনিবার ভোরে থেকে ডিম হতে বাচ্চা ফুটে বের হতে শুরু করে। ভোর থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত একে একে ৩৩টি বাচ্চা ফুটে বের হয়। একটি ডিম নষ্ট হয়ে গেছে। ৯টার পর স্যান্ডবিচ থেকে বাচ্চাগুলোকে তুলে ওই কেন্দ্রের প্যানে রাখা হয়েছে। প্যানে রেখে লালনপালনের পর ছেড়ে দেয়া হবে এই প্রজনন কেন্দ্রের বড় পুকুরে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে সুন্দরবনের করমজলে বিলুপ্তপ্রজাতির বাটাগুর বাস্কা কচ্ছপের সংরক্ষণ ও বংশবিস্তারে জন্য বনবিভাগ, আমেরিকা এবং অস্ট্রিয়ার দুইটি সংস্থা যৌথভাবে এ কেন্দ্রটি গড়ে তোলে। ২০১৪ সালে ৮টি কচ্ছপ দিয়ে এই প্রজনন কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর ২০১৭ সাল থেকে কেন্দ্রটিতে ডিম দিতে শুরু করে বাটাগুরবাস্কা কচ্ছপগুলো। এ পর্যন্ত বাটাগুরবাস্কা কচ্চপের ৩২৭টি ডিম থেকে ২৭৫টি বাচ্চা ফুটে। গত বছর চারটি বাটাগুরবাস্কা কচ্চপের ৯৬টি ডিম থেকে ৭৯টি বাচ্চা ফোটে। বর্তমানে সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে ছোট-বড় মিলিয়ে ৩৮৭টি বিলুপ্তপ্রজাতির বাটাগুরবাস্কা কচ্ছপ রয়েছে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ