• সোমবার   ২৩ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৯

  • || ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

দৈনিক গোপালগঞ্জ

সস্তায় করোনার ট্যাবলেট পাবে বাংলাদেশসহ ১০৫ দেশ

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০২২  

যুক্তরাষ্ট্রের মার্ক অ্যান্ড কোম্পানির করোনার ট্যাবলেট তৈরি করবে এশিয়া, আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের প্রায় ৩০টি ওষুধ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। এতে বাংলাদেশসহ অন্তত ১০৫টি দেশে কম দামে পাওয়া যাবে এ ট্যাবলেট। বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের পৃষ্ঠপোষকতায় থাকা একটি সংস্থা এই ঘোষণা দিয়েছে। খবর এএফপির।

বাংলাদেশের বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস, ভারতের ন্যাটকো ফার্মা, দক্ষিণ আফ্রিকার অ্যাসপেন ফার্মাকেয়ার হোল্ডিংস ও চীনের ফসুন ফার্মা উৎপাদন করবে মলনুপিরাভির নামের এই ট্যাবলেট। কোভিড-১৯ মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দরিদ্র দেশগুলোতে ওষুধ পৌঁছে দিতে জাতিসংঘ-সমর্থিত চুক্তির অধীনে এই ট্যাবলেট তৈরি করবে প্রতিষ্ঠানগুলো।

অন্য কোম্পানিকে ভাইরাসপ্রতিরোধী মলনুপিরাভির উৎপাদনে মার্কের সবুজসংকেত ফার্মাসিউটিক্যাল খাতের জন্য বিরল উদাহরণ হিসাবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কারণ তারা বহু বছর ধরে নিজেদের প্যাটেন্ট অধিকার সুরক্ষিত রাখে, অন্য কোম্পানিকে দিতে চায় না। এছাড়া মহামারির মধ্যে কম দামে ওষুধ বিক্রি করায় স্বত্বও দাবি করবে না মার্কিন এই কোম্পানি। জাতিসংঘ সমর্থিত মেডিসিন্স প্যাটেন্ট পুল (এমপিপি) মার্কের সঙ্গে এ সম্পর্কিত চুক্তি করেছে।

এমপিপি’র নির্বাহী পরিচালক চার্লস গোর বলেন, করোনার জরুরি চিকিৎসার জন্য এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। আমরা আত্মবিশ্বাসী যে বহুল প্রতীক্ষিত এই চিকিৎসা নিু ও মধ্য আয়ের দেশগুলোতে শিগগিরই পাওয়া যাবে।

অক্টোবরে এক চুক্তির আওতায় মার্কের কাছ থেকে লাইসেন্স পায় এমপিপি। এরপর এমপিপি জেনেরিক ওষুধ নির্মাতাদের সাব-লাইসেন্স দিচ্ছে। এর ফলে সাব-লাইসেন্সধারী কোম্পানিগুলো মলনুপিরাভিরের উৎপাদন করতে পারবে। পাঁচটি কোম্পানি কাঁচামাল উৎপাদনে মনোযোগ দেবে। ১৩টি কোম্পানি কাঁচামাল ও মলনুপিরাভির উৎপাদন করবে। আর নয়টি কোম্পানি শুধু ওষুধটি উৎপাদন করবে। এসব কোম্পানি বাংলাদেশ, চীন, মিসর, জর্ডান, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, কেনিয়া, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, দক্ষিণ কোরিয়া ও ভিয়েতনামের।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ