• রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

দৈনিক গোপালগঞ্জ

লবণ কম খেলে কী হয়

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৯ জুলাই ২০২৪  

খাবার লবণ হচ্ছে সোডিয়াম ক্লোরাইড। সুস্থতার জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণে লবণ খাওয়া প্রয়োজন। লবণ বেশি খেলে পেটে ক্যান্সার, স্থূলতা, হাঁপানির সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ ছাড়া হৃদপিণ্ড, কিডনি ও মস্তিষ্কের ক্ষতি হতে পারে। বাড়তে পারে ব্লাড প্রেসার। হতে পারে পাকস্থলীর ক্যান্সারও। কিন্তু প্রয়োজনের তুলনায় কম লবণ খেলেও সমস্যা। শরীরে নানাবিধ সমস্যা দেখা দেয়। তাহলে কী পরিমাণ লবণ খাবেন?

একজন সুস্থ মানুষের প্রতিদিন গড়ে প্রায় তিন গ্রামের মতো লবণ প্রয়োজন।  প্রয়োজনীয় লবণের এক গ্রাম থেকে দেড় গ্রাম স্বাভাবিক খাবার থেকেই আসে।

সব্বোর্চ কতটুকু লবণ খেতে পারবেন? বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য, এগারো বছরের বেশি বয়সের একজন ব্যক্তি প্রতিদিন ৬ গ্রাম পর্যন্ত লবণ খেতে পারেন। যা প্রায় ১ চা চামচের সমান। এর কম বয়সীদের ক্ষেত্রে অন্য নিয়ম। যাদের বয়স ৭-১০ বছর তারা প্রতিদিন ৫ গ্রাম পর্যন্ত লবণ খেতে পারেন, এর বেশি নয়। ৪ থেকে ৬ বছর বয়সীরা ৩ গ্রাম এবং ১ থেকে ৩ বছর বয়সীদের জন্য ২ গ্রাম লবণ যথেষ্ঠ। 

অনেকে প্রয়োজনের তুলনায় কম লবণ খান। এতে শরীরে নানাবিধ সমস্যা দেখা দিতে পারে। যেমন—

নিম্ন রক্তচাপ

ডিহাইড্রেশন

রক্তে সোডিয়ামের মাত্রা কমে যায়

রক্তে চর্বির মাত্রা বেড়ে যায়

মাথা ঘোরে

বমি বমি ভাব হয়

হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে যায়

দৃষ্টি ঝাপসা হয়

বিষণ্নতা দেখা দেয়

হার্ট ফেইলিউর অনুভব হতে পারে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ