• বুধবার ২৯ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

  • || ২০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

দৈনিক গোপালগঞ্জ

তাল খাওয়ার উপকারিতা

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

দেশি ফল তাল। পাকা তালের গন্ধটাই মন মাতানো। মিষ্টি স্বাদের এই ফল দিয়ে তৈরি করা যায় নানা পদের খাবার। তালের বড়া, তালের ক্ষীর, তালের ভাপা, তালের কেক- নানাভাবেই তৈরি করা যায়। অনেকে আবার তাল দিয়ে রুটি খেতেও পছন্দ করেন। নারিকেল ও তাল দিয়ে ভাত খাওয়ার প্রচলনও আছে আমাদের দেশে। সুস্বাদু এই ফলের রয়েছে অনেক উপকারিতা।

তালে থাকে ভিটামিন এ, বি, সি। এছাড়াও জিংক, পটাশিয়াম, আয়রন, ক্যালসিয়াম-সহ আরও অনেক খনিজ উপাদান। তার সঙ্গে আরও থাকে অ্যান্টি-অক্সিজেন ও অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান। সব মিলিয়ে এই ফল পুষ্টিগুণে ঠাসা। চলুন জেনে নেওয়া যাক তালের কিছু উপকারিতা-

আমাদের শরীরের নানা ধরনের উপকার করতে পারে তালের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য। এটি ক্যান্সার প্রতিরোধে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। সেইসঙ্গে স্বাস্থ্য রক্ষায়ও তাল নানা ধরনের উপকার করতে পারে। স্মৃতিশক্তি ভালো রাখতেও এটি কাজ করে।

তালে থাকে ভিটামিন বি, এটি এই ফলের সবচেয়ে বড় উপকারিতা। ভিটামিন বি-এর অভাবজনিত রোগ প্রতিরোধে তাল যথেষ্ট কার্যকরী। এই ভিটামিন রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়াতে কাজ করে। সেইসঙ্গে এটি শরীরের আরও নানা উপকার করে। তাই নিয়মিত তাল খাওয়া উপকারী।

তালে থাকে প্রচুর ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস আছে, যা হাড় ও দাঁতের ক্ষয় প্রতিরোধে সাহায্য করে। অন্ত্রের রোগ ও কোষ্ঠকাঠিন্য সারিয়ে তুলতে কাজ করে তাল। যারা এ ধরনের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য তাল একটি উপকারী ফল হতে পারে।

তালে অনেক গুণ রয়েছে, একথা ঠিক। তবে তালের বড়া তৈরি করে খেলে তাতে প্রচুর তেল যোগ হয়। এতে শরীরের ক্ষতি হতে পারে। যেমন এ ধরনের খাবার খেলে বেড়ে যেতে পারে অ্যাসিডিটি। এছাড়া এতে থাকা তেল আরও অনেক সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। তাল দিয়ে তৈরি খাবারে অতিরিক্ত চিনি যোগ করলেও বাড়তে পারে সমস্যা। তাই এদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ