• রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

দৈনিক গোপালগঞ্জ

পদ্মা সেতুতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ, বঙ্গবন্ধুতে নতুন রেকর্ড

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৬ জুন ২০২৪  

কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় পদ্মা সেতু হয়ে ঘরমুখী যাত্রী ও যানবাহন পারাপার বেড়েছে। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টার পর থেকে গতকাল শুক্রবার রাত ১২টা পর্যন্ত এ সেতু দিয়ে ৪৪ হাজার ৩৩টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। এতে টোল আদায় করা হয়েছে ৪ কোটি ৮০ লাখ ৩০ হাজার ১০০ টাকা। এর আগে গত ঈদুল ফিতরে এক দিনে টোল আদায় করা হয়েছিল ৪ কোটি ৮৯ লাখ ৯৪ হাজার ৭০০ টাকা। সে হিসাবে গত ২৪ ঘণ্টায় আদায় করা টোল পদ্মা সেতু চালু হওয়ার

পর এ যাবৎকালের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বলছে সেতু বিভাগ।

এদিকে উদ্বোধনের প্রায় ২৬ বছর পর টোল আদায়ে সর্বোচ্চ নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু কর্তৃপক্ষ। গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ একদিনে ৩ কোটি ৮০ লাখ ৬৩ হাজার ৪০০ টাকা টোল আদায় হয়েছে। ৫৩ হাজার ৪০৭টি যানবাহন পারাপারের মাধ্যমে এই টোল আদায় হয়েছে। উদ্বোধনের পর এর চেয়ে বেশি টোল আদায় হয়নি কখনও। গতকাল সকালে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব সাইট অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মাওয়া প্রান্ত দিয়ে ২৮ হাজার ৯৯৬টি যানবাহন পদ্মা সেতু পার হয়েছে। এতে এ প্রান্ত দিয়ে টোল আদায় হয়েছে ২ কোটি ৭২ লাখ ৫৪ হাজার ৫৫০ টাকা। জাজিরা প্রান্ত দিয়ে পদ্মা সেতু পার হয়েছে ১৫ হাজার ১৩৭টি গাড়ি। এতে এ প্রান্তে টোল আদায় হয়েছে ২ কোটি ৭ লাখ ৬৫ হাজার ৫৫০ টাকা। এ ছাড়া সেতু বিভাগের গাড়ি পারাপারে মাওয়া প্রান্তে বকেয়া আছে ১ হাজার ২০০ টাকা।

এর আগে ২০২৩ সালে সর্বোচ্চ টোল আদায় করা হয়েছিল ৪ কোটি ৬০ লাখ ৫৩ হাজার ৩০০ টাকা। ২০২২ সালে আদায় হয়েছিল ৪ কোটি ১৯ লাখ ৩৯ হাজার ৬৫০ টাকা।

এদিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব সাইট অফিস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) রাত ১২টা থেকে শুক্রবার (১৪ জুন) রাত ১২টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ একদিনে ৩ কোটি ৮০ লাখ ৬৩ হাজার ৪০০ টাকা আদায় এবং এর বিপরীত ৫৩ হাজার ৪০৭টি যানবাহন পারাপার হয়। এর মধ্যে টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব অংশের ঢাকা ও ময়মনসিংহের দিকে ৩৩ হাজার ২৫টি যানবাহন পারাপার হয়। এ থেকে টোল আদায় হয় ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা এবং সিরাজগঞ্জ সেতু পশ্চিম অংশে উত্তরবঙ্গের দিকে ২০ হাজার ৬৮৩টি যানবাহন পারাপার হয়। এ থেকে টোল আদায় হয় ১ কোটি ৭৪ লাখ ২৩ হাজার ৪০০ টাকা।

এর মধ্যে সেতুর টাঙ্গাইলের পূর্ব ও সিরাজগঞ্জের পশ্চিম প্রান্তে মোটরসাইকেল পারাপারের সংখ্যা ১০ হাজার ১০৫টি, হালকা ছোট যানবাহনের সংখ্যা ১৯ হাজার ৯৭২টি, বাস পারাপারের সংখ্যা ১২ হাজার ৮৭১টি এবং ট্রাক পারাপারের সংখ্যা ১০ হাজার ৭৬০টি।

এর আগে শুক্রবার (১৪ জুন) গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে ৩ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৩০০ টাকা টোল আদায় হয় এবং এর বিপরীত ৪০ হাজার ৯০৬টি যানবাহন পারাপার হয়। তার মধ্যে কোরবানি পশু ও পণ্যবাহী পরিবহন বেশি পারাপার হয়।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ