ব্রেকিং:
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পাচারকালে বিপুল পরিমাণ অবৈধ কাঠ জব্দ চাঁদপুরে ৫ কোটি টাকার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ নেত্রকোনা বিকল ট্রাকে পিকআপের ধাক্কা, নিহত ৩
  • শনিবার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ১০ ১৪২৮

  • || ১৭ সফর ১৪৪৩

দৈনিক গোপালগঞ্জ
সর্বশেষ:
রেলের মাধ্যমে যুক্ত হবে কক্সবাজার-দার্জিলিং : রেলমন্ত্রী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ইইউ’র সহায়তা চান পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের মতো কোনো পরিস্থিতি হয়নি: শিক্ষামন্ত্রী

গোপালগঞ্জে কঠোর প্রশাসন, লকডাউন মানতে নারাজ সাধারন মানুষ

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১২ জুলাই ২০২১  

করোনা ভাইরাস সংক্রমন রোধে লকডাউনে গোপালগঞ্জে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। সরকারের দেওয়া লকডাউন বাস্তবায়ন করতে সকাল থেকেই রোদ, বৃষ্টি উপেক্ষা করে মাঠে কাজ করছেন জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এই পরিস্থিতিতে জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা সকলকে ঘরে থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন। জেলার সর্বস্থরে মাইকিং করা হচ্ছে। তবুও লকডাউন মানতে নারাজ সাধারন মানুষ।
সরকারে দেওয়া লকডাউন বাস্তবায়ন করতে জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থানে রয়েছে। জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মহসিন উদ্দিন আইনশৃঙ্খলা রাক্ষাকারী বাহিনী নিয়ে করোনা সংক্রমন রোধে লোকজনদের ঘরে থাকার অনুরোধ জানাচ্ছেন এবং মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি । যারা বিধি নিষেধ অমান্য করে তাদের কে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানার আওতায় আনা হচ্ছে। কিন্তু তা মানতে নারাজ জনগন। যতক্ষণ প্রশাসন থাকে ততক্ষণ জনসমাগম বন্ধ থাকে। প্রশাসনের লোকজন চলে গেলেই ফের জনসমাগম বেড়ে যায়।
সড়কের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অবস্থান রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় প্রশাসনের লোকজন। মাঠে রয়েছে ম্যাজিস্ট্রেট, সেনাবাহিনী, বিজিবি,পুলিশ ও আনসার। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে লকডাউন কার্যকর করতে সেনাবাহিনী ও বিজিবি টহল দিচ্ছে শহরে । এ সময় জরুরী প্রয়োজন ছাড়া যারা সড়কে বেরিয়েছেন তাদের পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হয়। ভ্রাম্যমান আদালতের কাছে গুনতে হয় জরিমানা। তবে অন্যান্য দিনের তুলনায় আজ মানুষের ভীড় রয়েছে চোখে পড়ার মতো। বিনা কারনে অনেকে বাহিরে আসছে। প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে ভোর থেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দোকান পাট খোলা রাখছে। দোকানের অর্ধেক সাটার খোলা রেখে বেচা-কেনা করা হচ্ছে। এদিকে প্রশাসনের লোক দেখলেই সাটার বন্ধ করে দিচ্ছে দোকান মালিকরা। প্রশাসন চলে গেলেই পুনরায় ভীড় জমায় লোকজন।
জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মহাসিন উদ্দিন জানান, সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি যাতে সাধারণ মানুষ মেনে চলেন এজন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ