ব্রেকিং:
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পাচারকালে বিপুল পরিমাণ অবৈধ কাঠ জব্দ চাঁদপুরে ৫ কোটি টাকার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ নেত্রকোনা বিকল ট্রাকে পিকআপের ধাক্কা, নিহত ৩
  • শনিবার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ১০ ১৪২৮

  • || ১৮ সফর ১৪৪৩

দৈনিক গোপালগঞ্জ
সর্বশেষ:
রেলের মাধ্যমে যুক্ত হবে কক্সবাজার-দার্জিলিং : রেলমন্ত্রী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ইইউ’র সহায়তা চান পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের মতো কোনো পরিস্থিতি হয়নি: শিক্ষামন্ত্রী

বৃষ্টিতে ভিজে খাদ্যসামগ্রী পৌছে দিলেন কোটালীপাড়ার ইউএনও

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০২১  

বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে বৃষ্টিতে ভিজে অসহায় ব্যক্তির বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী পৌছে দিলেন গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ফেরদৌস ওয়াহিদ।

 

গত শুক্রবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদ উপজেলার কলাবাড়ি ইউনিয়নের বুরুয়া গ্রামের শান্তি রঞ্জন বিশ্বাসের বাড়িতে গিয়ে তার হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন।

 

এ সময় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ রাশেদুর রহমান, কলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা তার সাথে ছিলেন।

 

জানাগেছে, সম্প্রতি অসহায় শান্তি রঞ্জন বিশ্বাসের পরিবারকে নিয়ে জ্ঞানের আলো পাঠাগার তাদের ফেসবুকে একটি  পোস্ট দেয়। এই পোস্ট দেখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদ বৈরী আবহাওয়ার মাঝে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির হয় অসহায় শান্তি রঞ্জন বিশ্বাসের বাড়ি। এ সময় তিনি তার বসত ঘরটি দেখে সরকারি অনুদানে একটি ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

 

শান্তি রঞ্জন বিশ্বাস বলেন, বৃষ্টিতে ভিজে ইউএনও স্যার আমার বাড়িতে চাল, ডাল, তেলসহ নানা ধরণের খাদ্যসামগ্রী নিয়ে এসেছেন। তিনি আমাকে একটি ঘর দিবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। বর্তমানে আমরা যে ঘরে বসবাস করছি সেই ঘরে একটু বৃষ্টি হলেই পানি পড়ে। অনেক কষ্টে আমরা এই ঘরে বসবাস করছি। স্যার যদি আমাদের একটি নতুন ঘর দেন তাহলে আমাদের বসবাসের কষ্ট আর থাকবে না।

 

কলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা বলেন, একটি অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিতে বৃষ্টিতে ভিজে একজন ইউএনও যে ভাবে ছুটে এসেছেন তাহা সত্যিই বিরল। এই মহানুভবতার জন্য ইউএনও স্যারকে ধন্যবাদ জানাই।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদ নবধারা কে বলেন, শান্তি রঞ্জন বিশ্বাস নানা রোগে আক্রান্ত। তার একটি ছেলে প্রতিবন্ধী। সংসারে আয় করার মতো তেমন কেই নেই। পরিবারের ৫সদস্য একটি জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস করেন। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেখতে পেয়ে আমি শান্তি রঞ্জন বিশ্বাসের বাড়িতে যাই। এই পরিবারটিতে কিছু সরকারি সুযোগ সুবিধা চলমান রয়েছে। এদের একটি বসত ঘর প্রয়োজন। আমি খুব শীঘ্রই এদের জন্য একটি ঘরের ব্যবস্থা করবো।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ