ব্রেকিং:
করোনায় সারাদেশে আরও ৯ জনের প্রাণহানি, শনাক্ত ২৭৫ খোলা বাজারে ডলারের মূল্য ৯০ টাকা ছাড়ালো স্বপ্নের পায়রা সেতু উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ খুনের ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার ১০
  • সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ১০ ১৪২৮

  • || ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দৈনিক গোপালগঞ্জ

ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচে মুগ্ধ কোটালীপাড়া

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১  

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় কালিগঞ্জের বাবুর খালে হাজারো দর্শকের ভিড়ে উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো জমজমাট নৌকাবাইচ। বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষে আবহমান গ্রাম বাংলার কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও নিজস্বতা ধরে রাখতেই এ নৌকা বাইচের আয়োজন। ২শ বছরের ঐতিহ্যে লালিত আকর্ষনীয় এ নৌকা বাইচে গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, পিরোজপুর, নড়াইল, বরিশাল জেলার প্রত্যন্ত গ্রামের শতাধিক সরেঙ্গা, ছিপ, কোষা ও বাছারী নৌকা অংশ নেয়।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বাবুর খালের কালিগঞ্জ বাজার থেকে খেজুরবাড়ি পর্যন্ত ২ কিলোমিটার এলাকা এ জুড়ে অনুষ্ঠিত এ বাইচ দেখতে দু’পাড়েই ঢল ছিলো মানুষের।

নানা বর্ণে ও বিচিত্র সাজে সজ্জিত দৃষ্টিনন্দন এসব নৌকার তুমুল পাল্লা মুগ্ধ করে দর্শনার্থীদের। একের পর এক কুচ ঠিকারী কাশির বাদ্য ও তালে, জারি সারি গান গেয়ে নেচে ‘হেঁইও হেঁইও রবে’ বৈঠার ছলাৎ ছলাৎ শব্দে সৃষ্টি হয় এক অনবদ্য আবহের।

নৌকাবাইচের এ স্থানের বাড়তি আকর্ষণ ছিল নৌকায় নৌকায় মেলা। নৌকা বাইচ দেখতে দুপুর থেকেই বাবুর খালের দুই পাড়ে ভিড় করতে থাকে নারী-পুরুষ, তরুণ-তরুণীসহ দর্শনার্থীরা। গোপালগঞ্জসহ আশপাশের মাদারীপুর, বাগেরহাট, বরিশাল জেলা থেকে আসা অসংখ্য দর্শক এ নৌকা বাইচ উপভোগ করেন।

এলাকার অধিকাংশ লোকই প্রতি বছর এ দিনটির জন্য অপেক্ষা করেন। অনেকে গ্রামের বাইরে গিয়ে নানা কাজে শহরে জীবন যাপন করেন। কিন্তু, এদিন তারা কাটান একেবারেই গ্রাম্য পরিবেশে আর গ্রামীণ সংস্কৃতির সঙ্গে। সমবেত সমর্থক ও দর্শক বাইচে মাল্লাদের উৎসাহ দেন। খালের দু’ পাড়ে দাড়িয়ে থাকা মানুষের করতালি ও হর্ষধ্বনিতে এলাকা মুখরিত হয়ে ওঠে।

কুমারকান্দি গ্রামের রিপন ঘটক বলেন, আমাদের এলাকার নৌকা বাইচ কেউ প্রচলন করেননি। প্রায় দু’শ বছর আগে বিল এলাকার মানুষ চিত্ত বিনোদনের জন্য নৌকা দিয়ে নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা করতো, এ থেকে এটি প্রচলিত হয়। সে ঐতিহ্য এখনো চলছে।

কলাবাড়ি গ্রামের গৃহিনী বিউটি ওঝা বলেন, নৌকা বাইচ থেকে শুধু আনন্দ পেতেই নৌকার মালিকরা নৌকা নিয়ে এখানে আসেন। বাইচ উপলক্ষে বাড়িতে বাড়িতে আত্মীয় স্বজনরাও আসেন। মিলে মিশে সবাই আনন্দ উপভোগ করি।

কলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা বলেন, কোটালীপাড়া উপজেলার কালিগঞ্জে নৌকা বাইচ এখনো বর্ণিল। এ অঞ্চলে বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষে নৌকা বাইচের মধ্যে দিয়ে মৌসুমের বাইচের সূচনা হয়। এ নৌকা বাইচের কেউ আয়োজন করেন না। মনের খোরাক মেটাতে স্থানীয়রা নৌকা বাইচ দিয়ে থাকেন। এ কারণে এখনো কোটালীপাড়ায় নৌকা বাইচ স্বগৌরবে টিকে আছে। প্রতিবছর দুর্গা ও লক্ষ্মী পূজায় কালীগঞ্জসহ কোটালীপাড়ার বিভিন্ন স্থানে নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ