• মঙ্গলবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

  • || ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দৈনিক গোপালগঞ্জ

গোপালগঞ্জে কমিউনিটি ক্লিনিকের আঙ্গিনায় সবজি উৎপাদন কর্মসূচি শুরু

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২২  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে  ফসল উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কমিউনিটি ক্লিনিকের আঙ্গিনায়  সবজি উৎপাদন কর্মসূিচ শুরু হয়েছে।
বাংলাদেশের প্রথম কমিউনিটি ক্লিনিক গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার গিমাডাঙ্গা কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন কমিউনিটি ক্লিনিকের চেয়ারম্যান এবং প্রধানমন্ত্রীর সাবেক স্বাস্থ্য ও সমাজ কল্যাণ উপদেষ্টা প্রফেসর ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী। 

আজ বৃহস্পতিবার সকালে  ওই কমিউনিটি ক্লিনিক চত্বরে তিনি লাউ ও বেগুনের চারা রোপণ করেন। এ কার্যক্রম দেশের ১৩ হাজার ৭০৭টি কমিউিনিটি ক্লিনিকে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। এতে দেশের সবজি উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে। সাধারণ মানুষের খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা পূরণে এ সবজি অবদান রাখবে। 

এসময় কমিউনিটি ক্লিনিকের পরিচালক তুলশী রঞ্জন সাহা, কমিউনিটি ক্লিনিক পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আহ্মেদ আল কবির, কমিউনিটি ক্লিনিকের লাইন ডিরেক্টর মাসুদ রেজা কবির, কমিউনিটি ক্লিনিক মনিটরিং এবং সুপার ভিশনের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা ও গোপালগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব চক্ষু হাসপাতালের পরিচালক প্রফেসর ডা. নাহিদ ফেরদৌসীসহ কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্যসহায়তা ট্রাস্টি বোর্ড,কমিউনিটি বেইজড হেলথ কেয়ার (বিসিএইচসি) কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্টের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

কর্মসূচির উদ্বোধন করে প্রফেসর ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিক দার্শণিক রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চিন্তার ফসল। এটি প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবন বাঁচাতে সহায়তা করছে। প্রধানমন্ত্রী খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত  আহবান জানিয়েছেন। আমরা এ আহবানে সাড়া দিয়ে কমিউিনিটি ক্লিনিকের আঙ্গিনায় সবজি উৎপাদন কর্মসূচি শুরু করেছি। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার গিমাডাঙ্গা কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে আমরা এ কার্যক্রম শুরু করেছি। আমাদের দেশের ১৩ হাজার ৭০৭টি কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। ক্লিনিক গুলোর আঙ্গিনায় আমরা লাউ, বেগুন, কুমড়া, মরিচ, লাল শাক, ডাটাশাক, পালংশাকসহ বিভিন্ন ধরণের সবজি উৎপাদন করব। এতে দেশের সবজির উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে। এ সবজি থেকে দেশের মানুষ খাদ্য ও পুষ্টি পাবে। এছাড়া দেশে 
আমাদের কমিউনিটি ক্লিনিক গুলোতে প্রায় ১ লাখ কর্মী রয়েছে। তারা কমিউনিটি ক্লিনিকে সবজি উৎপাদন করবে। পাশাপাশি বসতবাড়ির আঙ্গিনায় সবজি চাষে তারা পরিবার প্রধানদের পরামর্শ দেবেন। এভাবে কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের মাধ্যমে সবজির উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে বলে আমি আশাবাদ ব্যক্ত করছি। 

কমিউনিটি ক্লিনিক মনিটরিং ও সুপার ভিশনের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা এবং গোপালগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মজিব চক্ষু হাসপাতালের পরিচালক প্রফেসর ডা, নাহিদ ফেরদৌসী বলেন, দেশের খাদ্য উৎপাদন বাড়িয়ে আমরা দেশ থেকে ক্ষুধাকে নিরুদ্দেশ করব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাঙ্খিত বাংলাদেশ আমরা গড়ে তুলব।
গিমাডাঙ্গা কমিউনিটি ক্লিনিকের কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার মোঃ হাসিবুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির আহবান জানিয়েছেন। সেই আহবানে সাড়া দিয়ে  কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্যসহায়তা ট্রাস্টি বোর্ডর চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী আমাদের কমিউনিটি ক্লিনিকে সবজির চারা রোপণ করে সবজি উৎপাদন কর্মসূিচর সূচনা করেছেন। আমরা এ কর্মসূিচ সফল করে টুঙ্গিপাড়ায় সবজির উৎপাদন বৃদ্ধি করব।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ