• বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৫ ১৪৩১

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪৫

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রস্তুত হচ্ছে শূন্য পদের তালিকা, মার্চে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অন্যতম সমস্যা শিক্ষক সঙ্কট। অনেক প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক স্বল্পতার কারণে নিয়মিত পাঠদান কার্যক্রমই ব্যাহত হচ্ছে। এই সমস্যা থেকে বের হতে এখন বছরে চারবার শূন্যপদে শিক্ষকদের তালিকা করে শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে চাইছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। গত মঙ্গলবার নতুন শিক্ষামন্ত্রীর সাথে এনটিআরসিএ’র কর্মকর্তাদের মতবিনিময় সভায় বিষয়টি উঠে আসে। এতে শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী জানান, শিক্ষক সঙ্কট মেটাতে দেশের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোয় বছরে অন্তত চারবার শিক্ষক নিয়োগের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। অবশ্য বছরে চারবার শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের খবরে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন শিক্ষকতায় আগ্রহী প্রার্থীরা। তাদের অনেকেই সরকারের এই উদ্যোগকে সাধুবাদও জানিয়েছেন।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক স্বল্পতা কাটাতে করণীয় প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষকদের পেশাগত মান বৃদ্ধি, প্রশিক্ষণসহ কাউকে যদি ক্ষমতায়ন করতে হয় এনটিআরসিএ-কেই করতে হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর, দেশের সব শিক্ষা বোর্ড, জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের সাথে সমন্বয় করে এনটিআরসির সক্ষমতা বৃদ্ধি করার প্রতি তিনি গুরুত্বারোপ করেন। শিক্ষক নিয়োগকে আরো ত্বরান্বিত করতে যদি এমপিও নীতিমালায় সংশোধন করার প্রয়োজন হয় তা হলে সে বিষয়ে সুপারিশ করতে তিনি এনটিআরসিএ-এর প্রতি আহ্বান জানান।

অপর দিকে খুব দ্রুত পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হবে বলে জানিয়েছেন বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহিল আজম। তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর তথ্য হালনাগাদের কাজ চলছে। এই প্রক্রিয়া শেষ হলে শূন্য পদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে। পরবর্তীতে পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। এক প্রশ্নের জবাবে চেয়ারম্যান জানান, আগামী এপ্রিলের আগেই পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে চাই। এ জন্য সংশ্লিষ্ট শাখার কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। শূন্য পদের তথ্য সংগ্রহের পর পরই গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হবে।

তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী আমাদের দফতরে এসেছিলেন। শিক্ষক সঙ্কট দূর করতে দ্রুত নিয়োগ কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান জানিয়েছেন। আমরাও চাচ্ছি, দ্রুত শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম শুরু করতে। আশা করছি এপ্রিলের আগেই পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে পারব।

সূত্র আরো জানায়, স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক সঙ্কট দূর করতে প্রতি বছর কমপক্ষে চারটি গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। এ জন্য বছরে একাধিকবার শূন্য পদের তথ্যও সংগ্রহ করা হবে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ