• বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ২ ১৪২৯

  • || ১৯ মুহররম ১৪৪৪

দৈনিক গোপালগঞ্জ

কুমিরের সঙ্গে মেয়রের বিয়ে

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২ জুলাই ২০২২  

আমাদের জীবনে বিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক চুক্তি। দুজন মানুষ একসঙ্গে থাকার প্রতিশ্রুতিকেই আমরা যারা বিয়ের সংজ্ঞা হিসেবে মনে করি। তাদের জন্য নতুন করে ভাবনার খোড়াক জোগানোর মতোই অনেক খবর এখন নেট দুনিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। কেউ নিজেই নিজে বিয়ে করছেন, কেউ বা বিয়ে করছেন পোষা কুকুরকে কিংবা মানবাকৃতির কোনো পুতুলকে।

এবার মেক্সিকোর এক ছোট্ট শহরের মেয়র এক জমকালো অনুষ্ঠানে বিয়ে করেছেন। কিন্তু তার কনে কোনো মানুষ নন, একটি কুমির।

বৃহস্পতিবার হওয়া বিয়ের অনুষ্ঠানে ঐতিহ্যবাহী সংগীত বাজানো হয় এবং শহরের বাসিন্দারা তাদের মেয়র ভিক্টর হুগো সোসাকে নতুন কনেকে চুম্বনের মাধ্যমে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করার অনুরোধ করেন। সে সময় নতুন কনেও সাজানো হয় বিয়ের সাজে।

পরে মেয়র চুমু দিয়ে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন। কিন্তু কনের পক্ষে সৌভাগ্য হয়নি বরকে চুমু দেয়ার, কারণ দুর্ঘটনা এড়াতে কনের মুখ বেঁধে রাখা হয়েছিল।

মেক্সিকোর ওক্সানা রাজ্যের চোন্টাল ও হুয়াভ আদিবাসী সম্প্রদায়ের মধ্যে প্রাক-হিস্পানিক যুগের আচার অনুষ্ঠান লক্ষ করা যায়, যা ক্যাথলিক আধ্যাত্মিকতার সঙ্গে মিশে এক নতুন রূপ ধারণ করেছে।

ভিক্টর হুগো সোসা শুধু একজন মেয়রই নন, তিনি একজন আদিবাসী নেতা।

সাত বছর বয়সী ছোট এই সরীসৃপ কেম্যান, যাকে রাজকুমারী বলা হচ্ছে। মাতৃভূমির প্রতিনিধিত্বকারী হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। স্থানীয় নেতার সঙ্গে তার বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার ফলে প্রকৃতির সঙ্গে মানুষের মিলন হয় বলে বিশ্বাস করে এসব আদিবাসী সম্প্রদায়।

এই বিয়ে পরিচালনাকারী পুরোহিত এলিয়া এডিথ আগুইলার, যিনি গডমাদার হিসেবে পরিচিত। এই বিয়ে পরিচালনা করতে পারায় নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছেন। তিনি বলেন, ‘এই বিয়ের ঘটনা আমাকে আমার শিকড় নিয়ে গর্বিত করে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ