• বুধবার ২৯ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

  • || ২০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

দৈনিক গোপালগঞ্জ

গোপালগঞ্জে পাঠক বান্ধব মুজিব কর্নার স্থাপন

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের গোপালগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়ের পাঠক বান্ধব মুজিব কর্নার স্থাপন করা হয়েছে।

এই মুজিব কর্নারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের ছবি স্থান পেয়েছে। মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক, মহাসড়ক ও ব্রিজের দুর্লভ আলোকচিত্র রয়েছে এখানে।বঙ্গবন্ধুর সময়ে পুর্নবাসিত সড়ক ও ব্রিজের ছবি এবং বর্ণনা উপস্থাপন রাখা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন এই মুজিব কর্নারে। এখানে সড়ক বিভাগের উন্নয়ন ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কিত বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য দেয়ালে দেয়ালে তুলে ধরা হয়েছে।

মুজিব কর্নারটিতে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ নিয়ে রচিত বই, ছবি, বঙ্গবন্ধুর গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্যের ব্যানার, আসবাবপত্র ও ফুল দিয়ে বর্ণিলভাবে সাজানো হয়েছে। এখানে বসে মরেনারম পরিবেশে বই পড়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সেই সাথে রাখা হয়েছে পরিদর্শণ বই। পরিদর্শণকারীরা এখানে এসে বই পড়েন।বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির সাথে একাকার হয়ে যান। পরে পাঠকরা এথানে রক্ষিত পরিদর্শণ বইতে মন্তব্য লিখে স্বাক্ষর করেন।

মুজিব কর্নারের পাঠক আহম্মেদ ইমতিয়াজ খান (৩২) বলেন, গোপালগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়ের প্রথম তলায় একটি দর্শনীয় মুজিব কর্নার স্থাপন করা হয়েছে। এখানে পাঠক বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়েছে। এখানে বসে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ সৃষ্টির বই পড়া যায়। এখানে এলে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির সাথে একাকার হয়ে যাওয়া যায়। এমন একটি সমৃদ্ধ ও সুসজ্জিত মুজিব কর্নার স্থাপন করার জন্য গোপালগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাহিদ হোসেনকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি একটি সৃজনশীল মুজিব কর্নারস্থাপন করেছেন।

পাঠক শেখ আরাফাত হোসেন(২৫)বলেন- সড়ক বিভাগের মুজিব কর্নারটি আকর্ষনীয়। এখানে বই পড়তে আমকে বার-বার টানে। এখানে দুর্লভ সব ছবি রাখা হয়েছে। ছবি দেখে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের চিনেছি। এখানে মুক্তিযুদ্ধের ছবি দেখে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে ধারনা পাচ্ছি। এখানে এসে জাতির পিতার স্পর্শ পাই। তাই এখানে এসে সময় কাটাতে ভাল লাগে।আমদের জন্য এমন সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করে দেয়ার জন্য গোপালগঞ্জ সড়ক বিভাগকে ধন্যবাদ জানাই। 

গোপালগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাহিদ হোসেন বলেন, নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানান দিতেই আমরা মুজিব কর্নার স্থাপন করেছি। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। বাংলাদেশ মানেই বঙ্গবন্ধু। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি।তাই মুজিব কর্নারে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশকে তুলে ধরা হয়েছে। এখানে এসে দর্শনার্থী বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে একটি ধারণা গ্রহণ করতে পারবেন।মুজিব কর্নারটি সেভাবেই সাজনো হয়েছে।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ