• বৃহস্পতিবার   ২০ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ৭ ১৪২৮

  • || ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

দৈনিক গোপালগঞ্জ

বছরটা পদ্মা সেতুর সাফল্যের

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৩০ ডিসেম্বর ২০২১  

বছরটা পদ্মা সেতুর জন্য সাফল্যই বয়ে এনেছে। সেতুতে সব স্ল্যাব বসানোয় সড়ক ও রেলপথে পদ্মার দুই পাড় সংযুক্ত হয়েছে এ বছর। শেষের পথে গ্যাস লাইন, সড়ক বিভাজক ও সেতুর দুই পাশের রেলিংয়ের কাজ। বাকি রয়েছে লাইটিং, পিচ ঢালাইসহ কিছু কাজ। সেতু কর্তৃপক্ষের আশা, সব কাজ শেষ করে জুনের মধ্যে খুলে দেয়া সম্ভব হবে পদ্মা সেতু।

পদ্মা সেতুতে সাফল্যের পালক মাথায় নিয়ে শুরু হয় বছর। ২০২১ সাল শুরুর আগে ১০ ডিসেম্বর সবশেষ স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে যুক্ত হয় পদ্মার দুই পার মাওয়া ও জাজিরা। ৭৬ দশমিক ৫০ শতাংশ সার্বিক অগ্রগতি নিয়ে শুরু হয় ২০২১ সালের কর্মযজ্ঞ।

বছরের শুরুতেই টার্গেট ছিল সবগুলো রেল ও রোড স্ল্যাব বসানো। ২ হাজার ৯৫৯টি রেল স্ল্যাবের মধ্যে সবশেষটি স্থাপন করা হয় ২০ জুন। এ কাজে সময় লেগেছে দুই বছর নয় মাস।

এদিকে, নির্ধারিত সময়ের একমাস আগে আগস্টে স্থাপন হয় শেষ রোড স্ল্যাবটি। ২ হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাব বসাতে সময় লাগে দুই বছর পাঁচ মাস। সব স্ল্যাব বসানোর মধ্যে দিয়ে সড়ক ও রেল পথের সংযোগ ঘটে পদ্মার দুই পাড়ের।

নভেম্বরে শুরু হয়েছে পিচ ঢালাই যা শেষ হবে আগামী বছরের এপ্রিলে। এছাড়া, সড়ক বিভাজক ও সেতুর সাইড ওয়ালের কাজও শেষের দিকে। দুই সপ্তাহের মধ্যে শেষ হবে নয়টি এক্সপাংশন জয়েন্টের কাজ। সব মিলে ২০২১ সালে কাজ হয়েছে ১২.৫ ভাগ।

করোনায় কঠোর লকডাউনের মধ্যেও বন্ধ হয়নি পদ্মা সেতুর কাজ। তবে বিশ্বব্যাপী কনটেইনার সংকটে কিছুটা ভুগতে হচ্ছে। কারণ পদ্মা সেতুর অনেক মালামাল আসে ইউরোপ ও এশিয়ার কয়েকটি দেশ থেকে। সব সংকট মাথায় রেখেই সেতু উদ্বোধনের লক্ষ্য রয়েছে জুনে। নদী শাসনসহ বাকী কাজ ২০২২ সালের মধ্যেই শেষ করার আশা প্রকৌশলীদের।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ