• বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৫ ১৪৩১

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪৫

দৈনিক গোপালগঞ্জ

সাজানো প্রতিবেদনের অভিযোগের মামলায় গ্রেপ্তার প্রথম আলোর সাংবাদিক

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৯ মার্চ ২০২৩  

সাভারে কর্মরত দৈনিক প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক শামসুজ্জামান শামসের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, কেউ সংক্ষুব্ধ হয়ে বিচার চাইলে বা সংক্ষুব্ধ হয়ে থানায় মামলা করলে সে অনুযায়ী পুলিশ ব্যবস্থা নিতেই পারে।

বুধবার (২৯ মার্চ) দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বেসরকারি মাদকাসক্তি নিরাময় ও পুনর্বাসন কেন্দ্রগুলোর মান উন্নয়নের জন্য সরকারি আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

গেল ২৬ মার্চ প্রথম আলোর যে প্রতিবেদনটি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল, তার প্রতিবেদক ছিলেন শামসুজ্জামান শামস।

প্রথম আলোতে যে ছবি বা সংবাদ ছাপানো হয়েছে, তা নিয়ে রাষ্ট্র বা সরকার যদি আপত্তি প্রকাশ করে তাহলে এর একটি আইনি প্রক্রিয়া আছে, প্রেস কাউন্সিলের মাধ্যমে বিচারিক ব্যবস্থার সুযোগ আছে। অথচ প্রথম আলোর সেই সাংবাদিককে সিআইডি তুলে নিয়ে এসেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টিকে কীভাবে দেখছেন- জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেখুন, আইন কিন্তু নিজস্ব গতিতে চলে। সব কিছু আইনানুযায়ী চলে। কেউ যদি সংক্ষুব্ধ হয়ে বিচার চায় বা সংক্ষুব্ধ হয়ে থানায় মামলা করেন, সে অনুযায়ী পুলিশ ব্যবস্থা নিতেই পারেন।  

তিনি বলেন, আমি যতটুকু জানি একটি মামলা দায়ের হয়েছে। সেজন্যই সিআইডি... আমি সম্পূর্ণভাবে সঠিক উত্তর দিতে পারছি না। কারণ আমার কাছে সব রিপোর্ট আসেনি। আপনারা যেমন প্রশ্ন করেছেন, সেরকম আমিও বিভিন্নভাবে জেনেছি। এই মামলাকে কেন্দ্র করে খুব সম্ভব কোনো একটি ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে আমি এখনো পরিষ্কার নই। আমি পরিষ্কার হয়ে আপনাদের ঘটনা জানাতে পারব।  

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রথম আলোর যে সাংবাদিক নিউজটি করেছেন, সেটি সঠিক ছিল না। ৭১ টিভির মাধ্যমে আপনারাই প্রকাশ করেছেন। এই সংবাদ যে ভিত্তিহীন, মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ছাপানো হয়েছে, তা স্পষ্ট। ৭১ টিভিতে তা সুন্দর করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।  

তিনি বলেন, আমরা এতোদূর এগোনোর পর  স্বাধীনতা দিবসে এ ধরনের একটা ভুয়া নিউজ যদি কেউ দেয়, তাহলে যে কেউ সংক্ষুব্ধ হতে পারে, আপনিও হতে পারেন। এই নিউজটা আপনাদের কাছেও নিশ্চয়ই ভালো লাগেনি।

রাষ্ট্রের আপত্তি আছে, সে কারণে ওই সাংবাদিককে তুলে নেওয়া হয়েছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, রাষ্ট্রের আপত্তি নয়। আমি তো বলছি যে একটি মামলা হয়েছে। তবে সব সংবাদ এখনও আমার কাছে আসেনি। আমার কাছে যে টুকরো টুকরো সংবাদ এসেছে, তার ভিত্তিতে আমি আপনাদের বলেছি। সব বিষয়ে সুনিশ্চিতভাবে বলতে হলে আমাকে আরো একটু সময় দিতে হবে। আমাকে সব বিষয়ে জেনে বলতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব আব্দুল্লাহ আল মাকসুদ চৌধুরী ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ