• বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২১ ১৪২৯

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

দৈনিক গোপালগঞ্জ

আর্টেমিস: নাসার চাঁদে ফেরার মিশনে প্রথম যাত্রায় হোঁচট

দৈনিক গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ৩১ আগস্ট ২০২২  

কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে সোমবার সকালে রওনা হওয়ার কথা ছিল নাসার পরবর্তী প্রজন্মের রকেটের। কিন্তু কারিগরি ত্রুটির কারণে শেষ মুহূর্তে এদিনের যাত্রা স্থগিত ঘোষণা করেন নাসার পরিচালক চার্লি ব্ল্যাকওয়েল-টম্পসন।

রকেট উৎক্ষেপণের ক্ষেত্রে এরকম কারিগরি ত্রুটি অবশ্য নতুন কিছু নয়। সেজন্য বিকল্প উৎক্ষেপণ দিন হিসেবে আগেই ২ ও ৫ সেপ্টেম্বর দুটো স্লট ভেবে রেখেছে নাসা।

অ্যাপোলো মিশনে চন্দ্রপিঠে অবতরণের ৫০ বছর পর আবারও মানুষকে চাঁদে নিয়ে যেতেই নাসার এই অভিযান, যার নাম দেওয়া হয়েছে মিশন আর্টেমিস। এ অভিযানকে নাসার মঙ্গল গ্রহে মানবযাত্রার পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

এই মিশনের মূল চালিকাশক্তি হচ্ছে স্পেস লঞ্চ সিসটেম, যাকে সংক্ষেপে এসএলএস বলা হচ্ছে। এটাই এখন পর্যন্ত নাসার সবচেয়ে আধুনিক মহাকাশ যান।

কথা ছিল, কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে স্থানীয় সময় ৮টা ৩৩ মিনিট, অর্থ্যাৎ বাংলাদেশ সময় সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ৩৩ মিনিটে রকেটটি উৎক্ষেপণ করা হবে। পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের বাইরে পৌঁছে রকেটটি একটি টেস্ট ক্যাপসুল ছুড়ে দেবে। এই টেস্ট ক্যাপসুলের নাম ওরিয়ন।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, স্পেস লঞ্চ সিসটেমে করে ওরিয়ন লঞ্চ প্যাডে বসানো হয়। শুরু হয় জ্বালানি ভরাসহ অন্যান্য রুটিন কাজ। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের ঘণ্টা দেড়েক আগে দেখা দেয় গড়বড়।

বিবিসি জানিয়েছে, রকেটের যে অংশ তরল হাইড্রোজেন ও তরল অক্সিজেন ট্যাংকের সঙ্গে যুক্ত, সেখানেই ফাটল ধরা পড়ে। নাসার প্রকৌশলীরা তখন বলেছিলেন, তারা ক্রুটি পরীক্ষা করে দেখছেন।

রকেটের চারটি বড় এরএস-২৫ ইঞ্জিনের একটিতেও সমস্যা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে উৎক্ষেপণের নির্ধারিত সময়ের ৪০ মিনিট আগে থেমে যায় কাউন্টডাউন। পরে জানানো হয়, সময়মতো ত্রুটি সারানো সম্ভব না হওয়ায় সোমবারের মত উৎক্ষেপণ স্থগিত করা হচ্ছে।

যাত্রা স্থগিত হলেও নাসা জানিয়েছে, তাদের স্পেস লঞ্চ সিস্টেম (এসএলএস) ‘স্থিতিশীল অবস্থায়’ আছে এবং কোথায় গড়বড় হয়েছে তা জানতে প্রকৌশলীরা এখন তথ্য সংগ্রহ করছেন।

দৈনিক গোপালগঞ্জ
দৈনিক গোপালগঞ্জ